একজন মুছল্লী তার নিজের চাওয়া-পাওয়াসহ যাবতীয় মুনাজাত কখন কিভাবে করবে?


সালাম ফিরানোর পূর্বে তাশাহহুদে বসে কুরআন ও ছহীহ হাদীছে বর্ণিত যেকোন দো‘আ ইচ্ছামত পড়তে পারবে (বুখারী হা/৯২৪; মিশকাত হা/৯০৯)। এছাড়া সিজদাতেও হাদীছে বর্ণিত দো‘আগুলো বেশী বেশী পড়া যাবে (মুসলিম হা/১১০২)। কারো দো‘আ মুখস্থ না থাকলে ছালাতের বাইরে যেকোন ভাষায় যেকোন বৈধ দো‘আ করতে পারে। তবে আল্লাহ্র রাসূল (ছাঃ) অধিকাংশ সময় নিম্নোক্ত সারগর্ভ দো‘আটি পাঠ করতেন, যা দুনিয়া ও আখেরাতের সব চাহিদাকে শামিল করে। যেমন ‘রববানা আ-তিনা ফিদ্দুনিয়া…’। এছাড়া দুই সিজদার মাঝে বসে ‘আল্লাহুম্মাগ ফিরলী ওয়ারহামনী…’ দো‘আটিও বান্দার সব চাওয়াকে শামিল করে।

This entry was posted in মুনাজাত কখন কিভাবে করবে? and tagged . Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.