অনেক মানুষকে ইসলামের বিভিন্ন বিধান সম্পর্কে বললে তারা সেগুলিকে শাখাগত বিষয় বলে এড়িয়ে যান। যেমন দাড়ি রাখা প্রসঙ্গে। এক্ষণে দ্বীনের মধ্যে মৌলিক ও শাখাগত বিষয় বলে কোন পার্থক্য আছে কি?


আল্লাহ বলেন, আমার রাসূল তোমাদেরকে যা দেন তা  গ্রহণ  কর এবং  যা নিষেধ করেন,  তা থেকে বিরত হও’
(হাশর ৫৯/৭)

। আর তিনি কোন কথাই বলেন না আল্লাহ্র ‘অহী’ ব্যতীত
(নাজম ৫৩/৩-৪)

। অতএব তাঁর আনীত ইসলামের ছোট-বড় সকল বিধানই মর্যাদার দিক দিয়ে সমান। ছাহাবায়ে কেরাম সকল আদেশ-নিষেধকে সমান মর্যাদা দিতেন ও তা পালনের জন্য জীবনপাত করতেন। অতএব গুরুত্বের বিবেচনায় কমবেশী হ’লেও মর্যাদায় সবই সমান। বিশেষ করে দাড়ি রাখাটা হ’ল একটি নিদর্শনমূলক সুন্নাত। যেটি সকল নবী-রাসূলের পালিত সুন্নাত। এটি রাসূল (ছাঃ)-এর সুন্নাত অনুযায়ী রাখতে হবে, অন্যের অনুকরণে নয়। অতএব শরী‘আতে যে বস্ত্ত যেভাবে বলা হয়েছে, সেভাবেই পালন করতে হবে। মূল ও শাখা বলে পার্থক্য বা হালকা করা যাবে না। ফক্বীহগণ শব্দ দু’টি ব্যবহার করে থাকেন গুরুত্ব বুঝানোর জন্য। হালকা বা অবজ্ঞা করার জন্য নয়।

Advertisements

About ইসলামী সাইট

কুরআন ও সহীহ হা‌দিস
This entry was posted in অনেক মানুষকে ইসলামের বিভিন্ন বিধান সম্পর্কে বললে তারা and tagged . Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s