আব্দুল্লাহ ইবনু ওমর (রা:) গোঁফ এত ছোট করতেন যে চামড়ার শুভ্রতা দেখা যেত। তিনি গোঁফ ও দাড়ির মধ্যবর্তী স্থানের লোম কেটে ফেলতেন (বুখারী)। আমরা এর বিপরীত করি কেন?


হাদীছে এ ব্যাপারে তিনটি পরিভাষা উল্লেখিত হয়েছে (১) ‘আহফুশ শাওয়ারিবা’ অর্থাৎ তোমরা গোঁফ বেশী করে কাটো (২) ‘ক্বাছছুশ শাওয়ারিবা’ তোমরা গোঁফ ছাঁটো (৩) আনহিকুশ শাওয়ারিবা -তোমরা গোঁফ ছোট করো (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/৪৪২০ ও ৪৪২১)। অতএব গোঁফকে খুব ছোট করা ভাল। তবে রাসূলুল্লাহ (ছা:) যেহেতু গোঁফ কাটতেও বলেছেন তাই ঠোঁটের উপর ঝুলে যাওয়া অংশ সহ সম্পূর্ণ গোঁফ কাটা উত্তম। রাসূলুল্লাহ (ছা:) বলেছেন, যে ব্যক্তি তার গোফ কাটলো না সে আমার দলর্ভুক্ত নয় (ছহীহ তিরমিযী হা/২৭৬১; মিশকাত হা/৪৪৩৮)। ইবনু ওমর (রা:)-এর আমল হিসাবে বুখারীতে তরজমাতুল বাবে যা বর্ণিত হয়েছে তা হ’ল গোঁফের দুই পার্শ্ব দাড়ি থেকে তিনি পৃথক করতেন।
উল্লেখ্য, ঠোঁটের নীচের অংশ কাটার ব্যাপারে রাসূল (ছা:) থেকে কোন দলীল পাওয়া যায় না।

Advertisements

About ইসলামী সাইট

কুরআন ও সহীহ হা‌দিস
This entry was posted in গোঁফ ও দাড়ির মধ্যবর্তী স্থানের লোম কেটে ফেলা and tagged . Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s