উপজাতীয়দের সাথে সম্পর্ক রাখা এবং তাদের রান্না খাবার খাওয়া যাবে কি?


অমুসলিম উপজাতীয়দের সাথে মানবিক সম্পর্ক রাখায় এবং তাদের তৈরী খাবার খাওয়ায় কোন বাধা নেই। কেননা রাসূল (ছাঃ) মুশরিক মহিলার মশক থেকে পানি পান করেছেন (বুখারী হা/৩৪৪; মিশকাত হা/৫৮৮৪)। আবু হুরায়রা (রাঃ) তার মুশরিক মাতার সাথে বসবাস করতেন (মুসলিম হা/২৪৯১; মিশকাত হা/৫৮৯৫ ‘মু‘জেযাহ’ অনুচ্ছেদ)। তবে তাদের যবহকৃত প্রাণীর গোশত খাওয়া যাবে না (আন‘আম ৬/১২১)। এক্ষেত্রে নিজে বিসমিল্লাহ বলে যবেহ করে দিতে হবে। অতঃপর তারা রান্না করে দিতে পারবে।

This entry was posted in অমুসলিম থেকে গরুর গোশত কিনে খাওয়া কি বৈধ হবে?, অমুসলিম প্রতিবেশীর বাড়ীতে যাতায়াত করা যাবে কি?, অমুসলিমদের নিকট থেকে সহযোগিতা নেওয়া যাবে কি?, অমুসলিমদের বানানো মিষ্টি, অমুসলিমদের যবেহকৃত পশুর গোশত খাওয়া জায়েয হবে কি?, অমুসলিমের ইফতারী খাওয়া জায়েয হবে কি?, উপজাতীয়দের রান্না খাবার খাওয়া যাবে কি?. Bookmark the permalink.