পরিবারে পর্দা রক্ষার স্বার্থে পৃথক বাড়ি বানাতে চাই। কিন্তু পিতা-মাতা রাযী হচ্ছেন না। এক্ষণে আমার আমার করণীয় কি?


পর্দা এবং পিতা-মাতার আনুগত্য উভয়টিই অতি গুরুত্বপূর্ণ। অন্যদিকে যে তিন শ্রেণীর লোক জান্নাতে প্রবেশ করবে না, তাদের মধ্যে অন্যতম হ’ল পিতা-মাতার অবাধ্য ব্যক্তি ও দাইয়ূছ তথা স্ত্রীর বেহায়াপনার ব্যাপারে উদাসীন পুরুষ (নাসাঈ হা/২৫৬২, ছহীহাহ হা/৬৭৪)। তাই এক্ষেত্রে শরী‘আতের পর্দার গুরুত্বের বিষয়টি পিতা-মাতাকে বুঝাতে হবে এবং সেখানেই পর্দার ব্যবস্থাপনা মযবূত করার সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হবে। কোনভাবেই সম্ভব না হ’লে তাদের প্রতি সদাচরণ এবং তাদেরকে সাধ্যপক্ষে সন্তুষ্ট রেখে পর্দার সুবিধা সম্বলিত পৃথক গৃহে স্থানান্তরিত হ’তে হবে। কেননা পিতা-মাতা শরী‘আতবিরোধী কোন কাজে চাপ দিলে তা মানা যাবে না (লোকমান ৩১/১৫)

This entry was posted in পিতা মাতার অবাধ্য কোন কাজ করা যাবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.