আমাদের এলাকায় একদল ভাই নির্দিষ্টভাবে জুম‘আর দিন তাহাজ্জুদের জন্য যুবকদের একত্রিত করে। এভাবে তাহাজ্জুদ তথা রাত্রি জাগরণ করা জায়েয হবে কি?


বরকত ও ফযীলতের আশায় কেবল জুম‘আর রাত্রিকে নির্দিষ্ট করে জাগরণ করা নিষিদ্ধ। কারণ রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, তোমাদের কেউ যেন কেবল জুম‘আর রাত্রিকে জাগরণের জন্য নির্দিষ্ট না করে। অনুরূপভাবে কেবল জুম‘আর দিনকে নির্দিষ্ট করে ছিয়াম পালন না করে, তার একদিন আগে বা পরে ছিয়াম রাখা ব্যতীত (মুসলিম হা/১১৪৪; মিশকাত হা/২০৫২; ‘নফল ছিয়াম’ অনুচ্ছেদ)। আর কোন দিনকে নির্দিষ্ট করে পূর্বঘোষণার মাধ্যমে একত্রিতভাবে নিয়মিত তাহাজ্জুদ ছালাত আদায়ের ব্যাপারেও শরী‘আতে কোন প্রমাণ পাওয়া যায় না (উছায়মীন, শারহুল মুমতে‘ ৪/৬০-৬১)। তবে ফযীলতের প্রত্যাশা ব্যতীত স্রেফ তা‘লীমের জন্য মাঝে-মধ্যে জামা‘আতের সাথে রাত্রি জাগরণ করায় কোন বাধা নেই। যেমন মহিলাদের দাবীক্রমে রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) তাদের তা‘লীমের জন্য একটা দিন ও স্থান নির্দিষ্ট করে দিয়েছিলেন (বুখারী হা/১১৩৫, ৭৩১০; মুসলিম হা/৭৭২, ২৬৩৩; মিশকাত হা/১৭৫৩)।

Advertisements
This entry was posted in তাহাজ্জুদের নামাজ নির্দিষ্ট কোন রাতে পড়া যাবে কি? and tagged . Bookmark the permalink.