চিকিৎসাকর্মে বিশেষত অপারেশনে নিয়োজিত থাকা কালে নির্ধারিত সময়ে ছালাত আদায় অসম্ভব হয়ে পড়ে। এরূপ অবস্থায় প্রায় নিয়মিতভাবে ছালাত ক্বাযা হয়ে যায়। এতে গোনাহগার হ’তে হবে কি?


এভাবে নিয়মিত ছালাত ক্বাযা করা যাবে না। যুদ্ধের ময়দানেও আল্লাহ তা‘আলা যথাসময়ে জামা‘আতের সাথে ছালাত আদায় করার নির্দেশ দিয়েছেন (নিসা ৪/১০২)। তবে এরূপ পরিস্থিতিতে মাঝে-মধ্যে দু’ওয়াক্তের ছালাত ক্বছর ও সুন্নাত ছাড়াই একত্রে জমা করে পড়া যেতে পারে। যেমন যোহর ও আছর পৃথক এক্বামতের মাধ্যমে ৪+৪=৮(ثَمَانِيًا)  এবং মাগরিব ও এশা অনুরূপভাবে ৩+৪=৭(سَبْعًا)  রাক‘আত। ইবনু আববাস (রাঃ)-কে জিজ্ঞেস করা হ’ল, এটা কেন? তিনি বললেন, যাতে উম্মতের কষ্ট না হয়’ (বুখারী হা/১১৭৪)

ইস্তেহাযা বা প্রদর রোগগ্রস্ত মহিলা ও বহুমূত্রের রোগী বা অন্যান্য কঠিন রোগী, বাবুর্চী এবং কর্মব্যস্ত ভাই-বোনেরা বিশেষ ওযর বশতঃ সাময়িকভাবে এ সুযোগ গ্রহণ করতে পারেন’ (নায়লুল আওত্বার ৪/১৩৬-৪০; ফিক্বহুস সুন্নাহ ১/২১৭-১৮; বিস্তারিত)

Advertisements
This entry was posted in ছালাত নিয়মিতভাবে ক্বাযা হয়ে গেলে গোনাহগার হ’তে হবে কি? and tagged . Bookmark the permalink.