রোগমুক্তির জন্য হারাম পশুর পেশাব পান করায় বাধা আছে কি?


হারাম পশুর পেশাব পান করা হারাম। আর হারাম বস্ত্ত ঔষধ হ’তে পারে না। জনৈক ছাহাবী রাসূল (ছাঃ) কে ঔষধ হিসাবে মদ ব্যবহারের অনুমতি চাইলে তিনি বলেন, এটা কখনোই রোগের প্রতিষেধক নয়। বরং তা রোগ সৃষ্টিকারী(মুসলিম হা/১৯৮৪, মিশকাত হা/৩৬৪২)। তবে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী যদি উক্ত পেশাব ব্যতীত রোগের কোন ঔষধ পাওয়া না যায়, তবে বাধ্যগত অবস্থায় তা গ্রহণ করা যাবে (আনআম ৬/১১৯)। রাসূল (ছাঃ) চুলকানী রোগের কারণে আব্দুর রহমান বিন ‘আউফ এবং যুবায়ের ইবনুল ‘আওয়াম (রাঃ)-কে সফরে রেশমের কাপড় পরিধান করার অনুমতি দিয়েছিলেন, যদিও তা পুরুষের জন্য হারাম (আবুদাঊদ হা/৪০৫৬, সনদ ছহীহ)

Advertisements
This entry was posted in পেশাব পান করা যাবে কি?, রোগমুক্তির জন্য হারাম পশুর পেশাব পান করায় বাধা আছে কি? and tagged . Bookmark the permalink.