জনৈক বক্তা বলেন, তাহাজ্জুদের ছালাতের আউয়াল ওয়াক্ত রাত্রি ১০ থেকে ১১ টার মধ্যে হয়। সেকারণ এ সময়ের মধ্যে তাহাজ্জুদ আদায় করা যেতে পারে। এ বক্তব্য সঠিক কি?


উক্ত বক্তব্য সঠিক নয়। বরং তাহাজ্জুদের ছালাতের সঠিক সময় হ’ল রাত্রির তৃতীয় প্রহর (বুখারী হা/৩৪২০; মুসলিম হা/১১৫৯; মিশকাত হা/১২২৫)। যেসময় আল্লাহ তার বান্দাদেরকে ডেকে ডেকে বলেন, কে আছ আমাকে আহবানকারী, আমি তার আহবানে সাড়া দেব। কে আছ আমার কাছে যাঞ্ছাকারী, আমি তাকে দান করব। কে আছ আমার নিকট ক্ষমা প্রার্থনাকারী, আমি তাকে ক্ষমা করব’। এভাবে বলতে থাকেন যতক্ষণ না ফজরের আলো স্পষ্ট হয়’(মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/১২২৩; মুসলিম হা/৭৫৮)। আর একারণেই রাসূল (ছাঃ) তাহাজ্জুদ ফউত হওয়ার আশংকা থাকলে রাতের প্রথম ভাগে বিতর ছালাতের পর দু’রাক‘আত নফল ছালাত আদায়ের নির্দেশ দিয়েছেন এবং একে রাত্রির নফল ছালাতের স্থলাভিষিক্ত হবে বলে ঘোষণা করেছেন (দারেমী, মিশকাত হা/১২৮৬; ছহীহাহ হা/১৯৯৩)। যদি এশার পরেই ওয়াক্ত হয়ে যেত, তাহলে এশার পর পুরো তাহাজ্জুদ আদায়েরই নির্দেশ দিতেন।

Advertisements
This entry was posted in তাহাজ্জুদের ছালাতের আউয়াল ওয়াক্ত রাত্রি ১০ থেকে ১১ টার মধ্যে হয় কি?. Bookmark the permalink.