দাঁত পরিষ্কারের ক্ষেত্রে প্রচলিত পেস্ট-ব্রাশ ব্যবহার করে মিসওয়াক করার নেকী পাওয়া যাবে কি?


যাবে। কারণ মিসওয়াক করার উদ্দেশ্য হ’ল মুখ পরিষ্কার রাখা। আয়েশা (রাঃ) বলেন, রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, ‘মিসওয়াক হচ্ছে মুখ পরিষ্কারকারী এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের উপায়’ (আহমাদ, নাসাঈ, মিশকাত হা/৩৮১, হাদীছ ছহীহ)। এছাড়া রাসূল (ছাঃ) মিসওয়াকের জন্য কোন কিছু নির্দিষ্ট না করে একাধিক গাছের ডাল দ্বারা মিসওয়াক করেছেন (বুখারী হা/২২৮; আহমাদ হা/৩৯৯১)। ইবনু তায়মিয়াহ (রহঃ) বলেন, মিসওয়াকের বিধান দেওয়া হয়েছে মুখকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য (শরহ উমদাতুল ফিক্বহ ১/২১৮)। অতএব কোন ক্ষতির সম্ভাবনা না থাকলে পেস্ট-ব্রাশ ব্যবহারে কোন বাধা নেই। উছায়মীন বলেন, ব্রাশ-পেস্ট ব্যবহার করায় সুন্নাত আদায় হয়ে যাবে। কারণ এর ছওয়াব বস্ত্তর কারণে নয়, বরং কাজ ও তার ফলাফলের উপর। আর শুধুমাত্র মিসওয়াক ব্যবহারের চেয়ে ব্রাশ-পেস্ট ব্যবহারে অনেক বেশী ফলাফল অর্জিত হয় (উছায়মীন, ফাতাওয়া নূরুন আলাদ দারব, ৭/২)

Advertisements
This entry was posted in পেস্ট-ব্রাশ ব্যবহার করে মিসওয়াক করার নেকী পাওয়া যাবে কি? and tagged . Bookmark the permalink.