সমাজে কিছু যুবক রয়েছে, যারা শিক্ষিত হ’লেও বেকার হওয়ায় বিবাহ করতে পারে না। অভিভাবকরাও এ ব্যাপারে একেবারেই উদাসীন। চরম ফেতনার যুগে এই শ্রেণীর পাপে জড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বেশী থাকে। এদের জন্য করণীয় কি?


দারিদ্র্য বিবাহের জন্য বাধা নয়। আল্লাহ বলেন, ‘তোমাদের মধ্যে যারা বিবাহহীন আছে, তাদের বিবাহ সম্পাদন করে দাও … তারা যদি নিঃস্ব হয়, তবে আল্লাহ নিজ অনুগ্রহে তাদেরকে স্বচ্ছল করে দিবেন’ (নূর ২৪/৩২)। রাসূল (ছাঃ) বলেন, তিন ব্যক্তিকে সাহায্য করা আল্লাহ স্বীয় কর্তব্য হিসাবে নির্ধারণ করেছেন, তাদের একজন হ’ল, বিবাহে ইচ্ছুক ব্যক্তি যে বিবাহের মাধ্যমে পবিত্র জীবন যাপন করতে চায় (তিরমিযী হা/১৬৫৫ প্রভৃতি; মিশকাত হা/৩০৮৯)। এমতাবস্থায় বিষয়টি সরাসরি বা যে কোন মাধ্যমে অভিভাবককে জানাতে হবে বা বুঝাতে হবে। নেক নিয়ত থাকলে অবশ্যই অভিভাবক বিষয়টি বুঝবেন। এছাড়া ছেলেদের জন্য বিবাহের ক্ষেত্রে অভিভাবকের অনুমতি আবশ্যক নয়। তাই অভিভাবকের উদাসীনতায় সে নিজেই এ ব্যাপারে অগ্রগামী হ’তে পারে (বিস্তারিত ‘তালাক ও তাহলীল’ বই দ্রঃ)

Advertisements
This entry was posted in বিবাহ দারিদ্র্যতা থাকলে করা যাবে কি? and tagged . Bookmark the permalink.