স্ত্রীর অনুমতি ছাড়া কেবল ইহসানের নিয়তে কোন ইয়াতীম, তালাকপ্রাপ্তা বা অসহায় নারীকে গোপনে বিবাহ করা জায়েয হবে কি? এছাড়া প্রথম স্ত্রীকে খুশী রাখতে ২য় স্ত্রী যদি বিভিন্ন ক্ষেত্রে স্বেচ্ছায় ছাড় দেয়, তা গ্রহণ করলে গুনাহগার হতে হবে কি?


প্রথমা স্ত্রীর অনুমতি নেওয়া শর্ত নয়। সামর্থ্য থাকলে একজন পুরুষ চারটি পর্যন্ত বিয়ে করার অধিকার রাখে (নিসা৪/৩; বুখারী হা/৪৮৭৮)। তবে সকল স্ত্রীর প্রতি ইনছাফ রাখতে হবে এবং কারো অধিকার আদায়ে কোনরূপ ত্রুটি করা যাবে না। কারণ আখেরাতে এর পরিণাম হবে অত্যন্ত ভয়াবহ (তিরমিযী হা/১১৪১; মিশকাত হা/৩২৩৬)। গোপনে বিবাহ করার উচিত হবে না। কারণ পরে জানাজানি হ’লে অধিক ফেৎনা সৃষ্টি হতে পারে। বরং ফেৎনা থেকে দূরে থাকার জন্য প্রথম স্ত্রীকে জানিয়ে দ্বিতীয় বিবাহ করাই সমীচীন হবে। তাছাড়া এক স্ত্রী স্বেচ্ছায় ছাড় দিলে তা গ্রহণ করাতে কোন বাধা নেই। সাওদা বিনতে যাম‘আহ (রাঃ) তার দিনগুলো স্বেচ্ছায় আয়েশাকে দান করেছিলেন, যা রাসূল (ছাঃ) গ্রহণ করেছিলেন (বুখারী হা/২৪৫৩, ২৫৯৩; মিশকাত হা/৩১৯৭)।

Advertisements

About ইসলামী সাইট

কুরআন ও সহীহ হা‌দিস
This entry was posted in বিবাহ প্রথমা স্ত্রীর অনুম‌তি ছাড়া করা যা‌বে কি? and tagged . Bookmark the permalink.