আমার স্ত্রীর ৭ ভরি এবং ১ বছরের মেয়ের ৬ ভরি সোনা আছে। এক্ষণে উভয়ের সোনা একত্রে হিসাব করে যাকাত দিতে হবে কি?


এরূপ অবস্থায় উক্ত স্বর্ণের মালিক হবে তার মা। যা তার কন্যাকে সাময়িকভাবে ধার স্বরূপ দেওয়া হয়েছে। অতএব মায়ের স্বর্ণের সাথে এটিকে মিলিয়ে একত্রে যাকাত দিতে হবে (উছায়মীন, মাজমূফাতাওয়া ১৮/৬৩)। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেছেন, ‘প্রত্যেক স্বর্ণ ও রৌপ্যের মালিক, যে তার হক (যাকাত) আদায় করে না, নিশ্চয়ই ক্বিয়ামতের দিন তার জন্য আগুনের বহু পাত তৈরী করা হবে’ (মুসলিম হা/৯৮৭; মিশকাত হা/১৭৭৩)

অনেকে নিজের সম্পদ সাময়িকভাবে ছেলে-মেয়ে, স্ত্রীর মধ্যে ভাগ করে দিয়ে যাকাত থেকে বাঁচার জন্য হীলা-বাহানা করেন। যা চরম অন্যায় ও বোকামীর শামিল। কারণ আল্লাহ বলেন, ‘আল্লাহ সূদকে নিঃশেষ করেন ও ছাদাক্বায় প্রবৃদ্ধি দান করেন। বস্ত্ততঃ আল্লাহ কোন অবিশ্বাসী পাপীকে পসন্দ করেন না’ (বাক্বারাহ /২৭৬)। অতএব সম্পদ প্রবৃদ্ধি ও পবিত্র করণার্থে যাকাত প্রদান করাই জান্নাত পিয়াসী মুমিনের কর্তব্য।

This entry was posted in স্ত্রী/মেয়ের ব্যবহার করা স্বর্ণের যাকাত দিতে হবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.