আমার ১৪ বছর বয়সী বোনের নিকটে একটি জিন রয়েছে, যে তার গলায় তাবীয না থাকলে নানা উৎপাত করে। ইতিপূর্বে জিনটি আমার মায়ের কাছে ছিল, তখনও মাঝে মাঝে ভয় দেখাত। এক্ষণে তাবীয দেহে রাখবো না খুলে ফেলব?


তাবীয খুলে ফেলতে হবে। কারণ তাবীয ঝুলানো শিরক (আহমাদ, ছহীহুল জামেহা/৬৩৯৪; ছহীহাহ হা/৪৯২)। জিনের কুপ্রভাব থেকে বাঁচার জন্য কুরআন ও হাদীছে বর্ণিত বিশুদ্ধ দো‘আসমূহ পাঠ করবে। বিশেষ করে নিয়মিত সকাল-সন্ধ্যায় সূরা নাস, ফালাক্ব, ইখলাছ ও আয়াতুল কুরসী (আবুদাউদ, নাসাঈ, মিশকাত হা/২১৬৩) এবং সূরা বাক্বারাহর কিছু অংশ, বিশেষ করে শেষ দুই আয়াত পাঠ করবে (বুখারী হা/৫০০৯; মুসলিম হা/৭৮০) রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যে গৃহে সূরা বাক্বারাহর শেষ দু’আয়াত পর পর তিন রাত পাঠ করা হয়, শয়তান তার নিকটবর্তী হয় না’ (তিরমিযী হা/২৮৮২)। এর মাধ্যমে জিন সংশ্লিষ্ট যাবতীয় বিপদ প্রতিবিধানে যথেষ্ট হবে ইনশাআল্লাহ।

This entry was posted in তাবীয ব্যবহার না করলে জিন উৎপাত করে তাহলে আমার করণীয় কি? and tagged . Bookmark the permalink.