সরকারী আবহাওয়া অধিদফতর ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রদত্ত সময়সূচীর মাঝে সূর্যাস্তের ক্ষেত্রে রামাযান মাসে ৩ মিনিট পার্থক্য দেখা যায়। এর কারণ কি?


সরকারী আবহাওয়া অধিদফতরের সময়সূচীতে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের যে সময় নির্ধারণ করা হয়, তা বৈজ্ঞানিকভাবে পর্যবেক্ষণ করে সূর্যাস্তের প্রকৃত সময় দেওয়া হয়। কিন্তু ইসলামিক ফাউন্ডেশন মূল সময়ের সাথে ৩ মিনিট যোগ করে ইফতারীর সময় নির্ধারণ করে। তাদের দাবী মতে সতর্কতার জন্য তারা এরূপ করে থাকেন। অথচ এটা নিতান্তই অন্যায়। কারণ রাসূল (ছাঃ)-এর স্পষ্ট নির্দেশ, সূর্যাস্তের সাথে সাথে ছায়েম ইফতার করবে’ (বুখারী হা/১৯৫৪; মুসলিম হা/১১০০; মিশকাত হা/১৯৮৫)। তিনি বলেন, ‘মানুষ ততদিন কল্যাণের মধ্যে থাকবে যতদিন তারা তাড়াতাড়ি ইফতার করবে। কেননা ইহূদী ও নাছারারা দেরীতে ইফতার করে’ (বুখারী হা/১৯৫৭; আবুদাঊদ, মিশকাত হা/১৯৮৪, ৯৫)। একবার আয়েশা (রাঃ)-কে আব্দুল্লাহ ইবনু মাসঊদ (রাঃ) দ্রুত ইফতার ও মাগরিবের ছালাত আদায় সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, রাসূল (ছাঃ) এরূপই করতেন (মুসলিম হা/১০৯৯)

অতএব সূর্যাস্তের পর ৩ মিনিট দেরী করা রাসূল (ছাঃ)-এর নির্দেশনার প্রতি অবহেলার শামিল। তাই তা পরিত্যাগ করে সূর্যাস্তের প্রকৃত সময় অনুযায়ী সূর্য ডোবার সাথে সাথে ইফতার করা কর্তব্য।

Advertisements
This entry was posted in ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রদত্ত ইফতারীর সময়সূচীর ৩ মিনিট পার্থক্য এর কারণ কি? and tagged . Bookmark the permalink.