আমি নানীর দুধ পান করে বড় হয়েছি। বড় হয়ে বড় মামার মেয়েকে বিয়ে করেছি এবং একটি ছেলে সন্তান হয়েছে। এক্ষণে আমাদের বিবাহ কি শুদ্ধ ছিল? শুদ্ধ না হ’লে আমাদের সন্তানের কি হবে? জানিয়ে বাধিত করবেন।


উক্ত বিবাহ শরী‘আতসম্মত হয়নি। কারণ আপনার মামা আপনার দুধভাই। যেমন হামযা (রাঃ) চাচা হওয়া সত্ত্বেও তিনি ছিলেন রাসূল (ছাঃ)-এর দুধভাই। আর দুধ ভাইয়ের মেয়েকে বিবাহ করা হারাম। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘বংশীয় সূত্রে যে সকল মহিলাকে বিবাহ করা হারাম, দুগ্ধপান সূত্রেও সেসকল মহিলাকে বিবাহ করা হারাম’ (বুখারী হা/২৬৪৫; মুসলিম হা/১৪৪৫-৪৭; মিশকাত হা/৩১৬১) এক্ষণে এই বিবাহ বিচ্ছেদ করে উভয়ে আলাদা হয়ে যেতে হবে (বুখারী হা/২০৫২)। যদি সন্তান কোলের শিশু হয়, তবে অন্যত্র বিবাহ হওয়ার পূর্ব পর্যন্ত মায়ের প্রতিপালনাধীনে থাকবে (আবুদাঊদ হা/২২৭৬; মিশকাত হা/৩৩৭৮; ছহীহাহ হা/৩৬৮)। অতঃপর জ্ঞান-বুদ্ধিসম্পন্ন হওয়ার পর মাতা বা পিতা যার নিকটে সে থাকতে চায় তার নিকটে থাকবে (আবুদাঊদ হা/২২৭৭; নাসাঈ হা/৩৪৯৬; মিশকাত হা/৩৩৮০; ছহীহুল জামে‘ হা/৭৯৫৯)। সন্তান যার নিকটেই থাকুক না কেন, পিতা ও মাতা উভয়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পারবে। এক্ষেত্রে কাউকে বাধা দেওয়া যাবে না। আর যথারীতি সে পিতার সম্পত্তির অংশীদার হবে, কেননা এটি ‘শিবহে নিকাহ’ বা বিবাহের অনুরূপই ছিল (ইবনু তায়মিয়াহ, মাজমূ‘ ফাতাওয়া ৩২/১০৩)

This entry was posted in নানীর দুধ পান করে বড় হয়েছি। মামার মেয়েকে বিয়ে করেছি এখন করণীয় কি? and tagged , , , . Bookmark the permalink.