জনৈক ব্যক্তি বলেন ছহীহ বুখারীতে হাদীছ আছে যে, মাথায় উকুন হ’লে ৩ দিন ছিয়াম বা ৬ জন মিসকীনকে অর্ধ ছা‘ করে খাওয়ালে মাথার উকুন থাকবে না। একথা কি সত্য?


এরূপ কোন নির্দেশনা ছহীহ বুখারী বা অন্য কোন হাদীছ গ্রন্থে নেই। তথ্যদাতা সম্ভবতঃ হজ্জের বিধান সংশ্লিষ্ট ছহীহ বুখারীর একটি হাদীছ দেখে ভ্রমে পতিত হয়েছেন। হাদীছটি হ’ল- আব্দুল্লাহ ইবনু মা‘ক্বিল (রহঃ) হ’তে বর্ণিত তিনি বলেন, আমি কা‘ব ইবনু উজরা (রাঃ)-এর পাশে বসে তাঁকে ফিদইয়া সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বললেন, এ আয়াত (বাক্বারাহ ২/১৯৬) বিশেষভাবে আমার সম্পর্কে নাযিল হয়েছে। তবে এ হুকুম সাধারণভাবে তোমাদের সকলের জন্যই। (হুদায়বিয়ার দিন মুহরিম অবস্থায়) রাসূল (ছাঃ) আমার নিকটে এলেন এবং আমাকে বললেন, তোমার মাথার উকুন কি তোমাকে কষ্ট দিচ্ছে? আমি বললাম, হ্যাঁ। তখন তিনি বললেন, তুমি মাথা মুন্ডন কর এবং (ফিদইয়া স্বরূপ) ৩ দিন ছিয়াম রাখ অথবা ৬ জন মিসকীনকে অর্ধ ছা‘ করে খাদ্য দান কর’ (বুখারী হা/৪১৯০ ‘মাগাযী’ অধ্যায় ‘ হোদায়বিয়ার সন্ধি’ অনুচ্ছেদ; মুসলিম হা/১২০১)

This entry was posted in মাথায় উকুন হ’লে ৩ দিন ছিয়াম রাখলে মাথার উকুন থাকবে না। একথা কি সত্য? and tagged , . Bookmark the permalink.