পুরুষদের জন্য স্বর্ণ ব্যবহার হারাম। এক্ষণে তারা স্বর্ণকার হিসাবে স্বর্ণের বেচা-কেনায় জড়িত থাকতে পারবে কি?


ইসলামে ব্যবসা-বাণিজ্যের মূলনীতি হ’ল, ইবাহাত বা বৈধতা, যতক্ষণ না শরী‘আত কর্তৃক তা হারাম করা হয়। স্বর্ণ মৌলিকভাবে হালাল, অতএব তার ব্যবসা করাও হালাল। আর স্বর্ণ বা স্বর্ণালংকার পুরুষদের জন্য হারাম হ’লেও মহিলাদের জন্য তা হালাল। রাসূল (ছাঃ) স্বর্ণ ব্যবসার মূলনীতি বর্ণনা করে বলেন, স্বর্ণের বিনিময়ে স্বর্ণ, রৌপ্যের বিনিময়ে রৌপ্য, গমের বিনিময়ে গম… সমান সমান, হাতে হাতে; অতঃপর যে ব্যক্তি বেশী দিবে বা বেশী চাইবে, সে ব্যক্তি সূদী কারবার করবে। গ্রহীতা ও দাতা উভয়ে সমান’ (মুসলিম হা/১৫৮৪; মিশকাত হা/২৮০৯)। তবে যদি বিক্রয় দ্রব্য পরস্পরে বিপরীত হয়, তাহ’লে তোমরা যেভাবে খুশী লেনদেন করতে পার, যখন তা হাতে হাতে নগদে হয়’ (মুসলিম হা/১৫৮৭; মিশকাত হা/২৮০৮)

This entry was posted in পুরুষরা স্বর্ণকার হিসাবে স্বর্ণের বেচা-কেনায় জড়িত থাকতে পারবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.