মাযহাবী ভাইয়েরা ইফতারের সময় তিন/চার মিনিট বিলম্ব করেন। এর কারণ কী?


সূর্য ডোবার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পরও বাড়তি সতর্কতার দোহাই দিয়ে তারা এটা করেন। যা সুন্নাত পরিপন্থী। কেননা রাসূল (ছাঃ) বলেন, সূর্যাস্তের সাথে সাথে ছায়েম ইফতার করবে (বুখারী হা/১৯৫৪; মুসলিম হা/১১০০; মিশকাত হা/১৯৮৫)। শুধু তাই নয়, দেরী করে ইফতার করাকে নিন্দা করে তিনি বলেন, ইহূদী-নাছারারা ইফতার পিছিয়ে দেয়’ (আবুদাঊদ হা/২২৫৩; মিশকাত হা/১৯৯৫)। তিনি বলেন, ‘লোকেরা অতদিন কল্যাণের মধ্যে থাকবে, যতদিন তারা তাড়াতাড়ি ইফতার করবে’ (বুখারী হা/১৯৫৭)। অতএব সতর্কতার নামে দেরী করে ইফতার করার নীতি বর্জনীয়।

This entry was posted in মাযহাবী ভাইয়েরা ইফতারের সময় তিন/চার মিনিট বিলম্ব করেন কেনো? and tagged , . Bookmark the permalink.