মোবাইলে ব্যালান্স না থাকলে ইমারজেন্সী ব্যালান্স নিতে হয়। কিন্তু সেক্ষেত্রে কোম্পানী অল্প কিছু টাকা অতিরিক্ত কেটে নেয়। এটা সূদের অন্তর্ভুক্ত হবে কি?


সার্ভিস চার্জ হিসাবে কাটলে সেটি সূদ হবে না। কিন্তু লক্ষ্য করা যায় যে, তাদের গৃহীত চার্জ স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশী, অর্থাৎ সার্ভিস চার্জ ব্যতীত অতিরিক্ত অর্থও কাটা হয়। প্রকৃতই যদি এরূপ অতিরিক্ত অর্থ গ্রহণ করা হয়, তবে তা সূদ হবে। কেননা হাদীছে এসেছে ‘কোন ঋণ যদি লাভ নিয়ে আসে, তবে তা সূদ’ (সুনান বায়হাক্বী হা/১০৯৩৩)। হাদীছটি মারফূ‘ ও মাওকূফ বিভিন্ন সূত্রে যঈফ সনদে এলেও এর মর্মার্থ ছহীহ। সর্বোপরি সন্দেহজনক লেনদেন থেকে বিরত থাকাই উত্তম। রাসূল (ছাঃ) বলেন, সন্দিগ্ধ বিষয় পরিহার করে নিঃসন্দেহ বিষয়ের দিকে ধাবিত হও। কেননা সত্যে রয়েছে প্রশান্তি এবং মিথ্যায় রয়েছে সন্দেহ’ (আহমাদ, তিরমিযী, নাসাঈ, সনদ ছহীহ, মিশকাত হা/২৭৭৩)

This entry was posted in মোবাইলে ইমারজেন্সী ব্যালান্স নিলে সূদের অন্তর্ভুক্ত হবে কি? and tagged . Bookmark the permalink.