একজন তালাকপ্রাপ্তা মহিলার পিতা বেঁচে নেই। তার মা ও বড় ভাই তাকে বলেছে, তোমার পসন্দ মতো বিয়ে করে নাও, আমাদের কোন আপত্তি নেই। অন্যদিকে এক লোককে তার স্ত্রী খোলা তালাক দিয়েছে। এই লোককিও তার পিতামাতা বলেছে, তোমার পসন্দ মতো বিয়ে করে নিও। আমাদের কোন আপত্তি নেই। এই দু’জনের বিবাহ হয় বিদেশে এবং দুই পরিবার বিবাহ সাদরে গ্রহণ করে নেয়। তবে বিদেশে বিয়ে হওয়ায় অভিভাবকরা অনুপস্থিত ছিল। এই বিবাহ বৈধ হবে কি?


যদি ওলী বা অভিভাবকের অনুমতিক্রমে ও দু’জন সাক্ষীর উপস্থিতিতে উক্ত বিবাহ সম্পাদিত হয়ে থাকে তাহ’লে বিবাহ বৈধ হয়েছে। কেননা বিদেশে থাকার কারণে অভিভাবক যদি ফোনের মাধ্যমে কাউকে তার পক্ষ থেকে ওলী নিয়োজিত করে এবং দু’জন সাক্ষীর উপস্থিতিতে ঈজাব ও কবুল হয়, তাতেও বিবাহ হয়ে যাবে (উছায়মীন, আশ শারহুল মুমতে‘ ১২/৮৯-৯০; মুহাম্মাদ ইবনু ইবাহীম আলে শায়খ, ফাতাওয়া ওয়া রাসায়েল ১০/৭৬)

This entry was posted in বিবাহ বিদেশ থাকা অবস্থায় হলে বিবাহ বৈধ হবে কি and tagged , . Bookmark the permalink.