পড়াশোনার প্রয়োজনে তথা ভূমি গবেষণার জন্য আমাদেরকে রাতের পর রাত গভীর জঙ্গলে ছেলে-মেয়ে একত্রে কাটাতে হয়, অধ্যয়ন করতে হয়। একে অপরকে সাহায্য করতে হয়। কোন মেয়ে অসুস্থ হ’লে কয়েকজন পালাক্রমে তাকে বহন করে চলতে হয়। এর ফলে কি আমাদেরকে গুনাহগার হ’তে হবে?


এই ধরনের পরিস্থিতি বর্তমান মুসলিম দেশগুলোতে অতীব দুঃখজনক এক বাস্তবতা। ছাত্র-ছাত্রীদের পৃথক শিক্ষা পরিবেশ প্রদান না করে কর্তৃপক্ষ এমন ভয়ংকরভাবে তাদেরকে গুনাহে লিপ্ত হওয়ার ব্যবস্থা করছে। নিঃসন্দেহে এতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ, ছাত্র-ছাত্রী প্রত্যেকেই গুনাহগার হবেন। কেননা এমন পরিস্থিতিতে নারী ও পুরুষ কারো পক্ষে যথাযথ ইসলামী পর্দা মেনে চলা সম্ভব নয়। অতএব এমন পর্দাহীন ও প্রতিনিয়ত গুনাহে লিপ্ত হওয়ার পরিবেশে গবেষণা থেকে বিরত থাকতে হবে।

This entry was posted in বাধ্যতা অবস্থায় ছেলে-মেয়ে একত্রে কাটাতে হয় এতে কি গুনাহগার হ’তে হবে? and tagged , . Bookmark the permalink.