কুরআন মজীদ হাত থেকে পড়ে গেলে কুরআনের ওযনে ফকীর-মিসকীনকে চাউল দিতে হবে। একথার সত্যতা আছে কি?


এ কথার কোন ভিত্তি নেই। তবে কুরআন সর্বাধিক মর্যাদাসম্পন্ন পবিত্র গ্রন্থ (বুরূজ ২২)। অনিচ্ছাকৃতভাবে কুরআন পড়ে গেলে কিংবা পা লাগলে ভীতি ও শ্রদ্ধার সাথে তওবার মন নিয়ে ‘ইন্নালিল্লা-হি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজে‘উন’ পাঠ করবে (বাক্বারাহ ২/১৫৬; উম্মে সালামাহ (রাঃ) হ’তে বর্ণিত হাদীছ, মুসলিম, মিশকাত হা/১৬১৮ ‘জানায়েয’ অধ্যায়)। কুরআনের মর্যাদার দিকে লক্ষ্য রেখে সর্বদা সাবধানতা অবলম্বন করে চলতে হবে এবং কোনভাবেই যেন এর মর্যাদা ক্ষুণ্ণ না হয় সেদিকে সতর্কভাবে খেয়াল রাখতে হবে। এজন্য রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) শত্রুভূমিতে কুরআন নিয়ে সফর করতেও নিষেধ করেছেন (মুত্তাফাক্ব ‘আলাইহ, মিশকাত হা/২১৯৭, ‘কুরআন পাঠের আদব’ অনুচ্ছেদ)

This entry was posted in কুরআন পড়ে গেলে কুরআনের ওযনে চাউল দান করেতে হবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.