রাসূল (ছাঃ) উম্মে হানীকে বিবাহের প্রস্তাব দেওয়ার পরেও উম্মে হানী কেন বিবাহে রাযী হননি?


আল্লাহর রাসূল (ছাঃ) তাঁর চাচাত বোন উম্মে হানীকে দুই বার বিবাহের প্রস্তাব দিয়েছিলেন বলে বর্ণনা পাওয়া যায়। যেমন একবার নবুঅত লাভের পূর্বে জাহেলী যুগে তার পিতা আবু তালেবকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি নিকটাত্মীয়দের বাইরে আত্মীয় বানানোর জন্য রাসূলের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে হুবায়রা বিন আবু ওয়াহাবের সাথে বিবাহ দেন। তবে এটি ছহীহ সনদে প্রমাণিত নয়। আর ইসলামী যুগে রাসূল (ছাঃ) তাকে আরেকবার বিবাহের প্রস্তাব দিলে তিনি নিজের বার্ধক্য ও সন্তানদের দেখাশুনার ব্যস্ততা দেখিয়ে বিবাহে অসম্মতি জানান। তখন রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘উষ্ট্রারোহী মহিলাদের মধ্যে কুরায়েশ বংশের মহিলারা সর্বোত্তম। তারা শিশুদের প্রতি স্নেহশীলা এবং স্বামীর মর্যাদা রক্ষার্থে উত্তম হেফাযতকারিনী’ (বুখারী হা/৫৩৬৫; মুসলিম হা/২৫২৭; ইবনু সা‘দ, ত্বাবাকাত ৮/১২০; আল-ইছাবাহ ৮/৩১৭)

This entry was posted in বিবাহের প্রস্তাব রাসূল (ছাঃ) উম্মে হানীকে দেওয়ার পরেও কেন রাযী হননি? and tagged , . Bookmark the permalink.