একটি জমি কবরস্থানের নামে ওয়াক্বফ করা হয়েছে। এক্ষণে উক্ত জমির কিছু অংশে মসজিদ নির্মাণ করা যাবে কি? বা ওয়াক্বফের জমি পরিবর্তন করে অন্য কোন কল্যাণমূলক কাজে লাগানো যাবে কি?


ওয়াক্বফের নিয়ম হ’ল, যে উদ্দেশ্যে ওয়াক্বফ করা হয়েছে, কেবল সেজন্যই তা ব্যবহৃত হ’তে হবে। তবে ইবনু তায়মিয়া সহ কতিপয় বিদ্বানের মতে, অধিকতর কল্যাণের উদ্দেশ্যে হ’লে ওয়াক্বফকারীর প্রদত্ত শর্ত পরিবর্তন করা যায়। অতএব উক্ত জমির কিছু অংশে মসজিদ নির্মাণ জনগণের জন্য অধিক কল্যাণকর হ’লে তাতে কোন দোষ নেই। অনুরূপভাবে ওয়াক্বফকৃত জমির কিছু অংশ অন্য কোন সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যবহারে দোষ নেই ইনশাআল্লাহ (ইবনু তায়মিয়াহ, আল-ইখতিয়ারাত ১/৫০৯; উছায়মীন, আশ-শারহুল মুমতে‘ ৯/৫৬০-৬১; ইবনু যুরাইক মারদাভী, আল-মুনাক্বালাতু ওয়াল ইস্তিবদাল বিল আওক্বাফ বই দ্রষ্টব্য)

Advertisements
This entry was posted in মসজিদের জমি অন্য কাজে ব্যবহার করে যাবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.