কোন মহিলা দেশ থেকে ওমরার জন্য ইহরাম বাঁধার পর মক্কায় পৌঁছার পূর্বে ঋতুবতী হ’লে সে কি ইহরাম ভঙ্গ করবে? এমতাবস্থায় সে কি তানঈম বা আয়েশা মসজিদ থেকে ওমরার জন্য পুনরায় ইহরাম বাঁধবে?


এমতাবস্থায় ইহরাম ভঙ্গ করার কোন প্রয়োজন নেই। বরং ইহরাম অবস্থায় থাকবে এবং ছালাত ও তাওয়াফ ব্যতীত অবশিষ্ট কাজগুলি সম্পন্ন করবে। এ সময় পোষাক পরিবর্তনেও কোন দোষ নেই। ঋতু থেকে পবিত্র হওয়ার পর তাওয়াফ করবে ও মাতাফে দু’রাক‘আত ছালাত আদায় করবে (ইবনু তায়মিয়াহ, মাজমূ‘ঊল ফাতাওয়া ২৬/১৮০-১৮১; উছায়মীন, সিত্তূনা সুওয়ালান ফী আহকামিল হায়েয ওয়ান নিফাস, প্রশ্ন নং ৪৭)। কেননা হাদীছে এসেছে, ঋতুবতী ও নিফাসওয়ালী নারীরা মীকাতে পৌঁছে গোসল করবে, ইহরাম বাঁধবে এবং বায়তুল্লাহর তাওয়াফ ছাড়া অন্যান্য সমস্ত কাজ সম্পন্ন করবে। আবু মা‘মার তার বর্ণনায় ‘পবিত্র হওয়া পর্যন্ত’ বাক্যটি বলেছেন। ইবনু ঈসা বলেন, বায়তুল্ল­াহ তাওয়াফ করা ব্যতীত হজ্জ ও ওমরার অন্যান্য সকল কাজ করবে (আবুদাঊদ হা/১৭৭৪; ছহীহুল জামে‘ হা/৩১৬৬; ছহীহাহ হা/১৮১৮)। উল্লেখ্য যে, হায়েয বা নিফাস অবস্থায় ইহরাম বাঁধায় কোন ক্ষতি নেই (মুসলিম হা/১২১০)

This entry was posted in ওমরার জন্য ইহরাম বাঁধার পর মক্কায় পৌঁছার পূর্বে ঋতুবতী হ’লে করণীয় কি? and tagged . Bookmark the permalink.