আমার দুই ভাগিনী হানাফী মাদরাসায় লেখাপড়া করে। আমি তাদের মাদরাসার মাসিক বেতন দেই। কিন্তু তাদের পিতামাতা আহলেহাদীছ লোকদের ছালাত পসন্দ করে না এবং যে দুই ভাগিনী মাদরাসায় লেখাপড়া করে তারাও পসন্দ করে না। এ ক্ষেত্রে আমার করণীয় কি? আমি যে টাকা দিচ্ছি তাতে তারা যে ভুল জিনিস শিক্ষা নিয়ে ভুল আমল করবে তাতে আমি গোনাহগার হব কি?


এমতবস্থায় সাধ্যমত তাদেরকে বিশুদ্ধ আক্বীদা ও মানহাজসম্পন্ন প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করার চেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে। আর যদি তারা ভুল আক্বীদা ও আমল সম্পর্কে সচেতন না হয়; বরং ভুলের উপর অটল থাকে, তবে সহযোগিতা করা যাবে না। কেননা দ্বীনশিক্ষার নামে জেনেশুনে শিরক ও বিদ‘আতী আক্বীদা ও আমল শিক্ষাগ্রহণে সহযোগিতা করা অন্যায়ের সহযোগিতারই শামিল (মায়েদাহ ৫/২)

This entry was posted in ভুল আমল শিক্ষাকারীকে সহযোগিতা করা যাবে কি? and tagged , . Bookmark the permalink.