ছেলের পরিবারের উপস্থিতিতে একটি বিয়ে সম্পন্ন হয়। তবে মেয়ের পিতা, ভাইসহ পরিবারের কেউ এতে রাযী ছিল না। কিন্তু মেয়ের চাচা অলী হিসাবে দায়িত্ব নিয়ে বিবাহ দেয়। এক্ষণে এ বিয়ে কি বৈধ হয়েছে? পিতার বর্তমানে অন্য কেউ অলী হ’তে পারে কি?


উক্ত বিবাহ শুদ্ধ হয়নি। কারণ পিতার উপস্থিতিতে অন্য কেউ অলী হ’তে পারে না। আর অলী ছাড়া বিবাহ বাতিল হবে। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘কোন মহিলা যদি অলীর বিনা অনুমতিতে বিবাহ করে তাহ’লে তার ঐ বিবাহ বাতিল, বাতিল, বাতিল’ (আহমাদ, তিরমিযী, আবুদাউদ, সনদ ছহীহ, মিশকাত হা/৩১৩১ ও ৩১৩০)। তিনি আরো বলেন, ‘অলী’ ও দু’জন ন্যায়পরাপয়ণ সাক্ষী ব্যতীত বিবাহ হয় না। ইবনে আববাস (রাঃ) বলেন, ন্যায়নিষ্ঠ দু’জন সাক্ষী এবং বিবেকবান একজন ‘অলী’ ব্যতীত বিবাহ হয় না (ইরওয়াউল গালীল হা/১৮৪৪ হাদীছ ‘মওকূফ’ ছহীহ)। অলী হচ্ছেন পিতা, দাদা, পুত্র, ভ্রাতা, চাচা এবং এভাবে পুরুষ নিকটাত্মীয়গণ। অতঃপর দেশের প্রশাসন (আবূদাঊদ প্রভৃতি, মিশকাত হা/৩১৩১, হাদীছ ছহীহ; ফাতাওয়া হাইয়াতুল কিবারিল ওলামা ২/৬২৭ পৃ.)। এক্ষণে পিতা রাযী থাকলে তার উপস্থিতিতে উক্ত বিবাহ নবায়ন করতে হবে।

This entry was posted in অ‌ভিভাব‌কের বিনা অনুম‌তি‌তে বিবাহ কর‌লে বিবাহ হবে কী এবং সম্পদ পা‌বে কী?, অ‌ভিভাবক বা ওলী না থাক‌লে করণীয়! and tagged , . Bookmark the permalink.