আমার এক নাস্তিক বন্ধু প্রশ্ন করেছে যে, কুরআনে যদি সব কিছুর বর্ণনা থেকে থাকে, তবে আমাদের নিত্যদিনে ভক্ষণকৃত সবজি ও ফলসমূহের নাম নেই কেন?


কুরআনে আল্লাহ মানব জীবন পরিচালনার মূলনীতিসমূহ বর্ণনা করেছেন। সুতরাং এটা যরূরী নয় যে, প্রতিটি জিনিসের নাম কুরআনে পৃথক পৃথকভাবে উল্লেখ করা হবে। যদিও এর বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন প্রসঙ্গে প্রচলিত অনেক ফলমূল ও সবজির কথা এতে উল্লেখ করা হয়েছে (ত্বীন ১-২)। যেমন আল্লাহ বলেন, ‘অতঃপর ভূমিকে ভালভাবে বিদীর্ণ করি, অতঃপর তাতে উৎপন্ন করি খাদ্য-শস্য, আঙ্গুর ও শাক-সবজি, যয়তূন ও খর্জুর, ঘন পল্লবিত উদ্যানরাজি এবং ফল-মূল ও ঘাস-পাতা, তোমাদের ও তোমাদের গবাদিপশুর ভোগ্যবস্ত্ত হিসাবে’ (‘আবাসা ২৬-৩২)। তিনি আরও বলেন, ‘ঐ পানি দ্বারা তিনি তোমাদের জন্য উৎপাদন করেন ফসল, যয়তুন, খেজুর, আঙ্গুর ও সর্ববিধ ফল। এর মধ্যে চিন্তাশীল সম্প্রদায়ের জন্য নিদর্শন রয়েছে’ (নাহল ১৬/১১)। তিনি আরও বলেন, ‘আর যখন তোমরা বললে, হে মূসা! একই ধরনের খাদ্যে আমরা কখনোই ধৈর্য ধারণ করতে পারব না। অতএব তুমি তোমার প্রভুর নিকটে আমাদের জন্য প্রার্থনা কর যেন তিনি আমাদের এমন সব খাদ্য দান করেন যা মাটিতে উৎপন্ন হয়। যেমন সবজি, কাকুড়, গম, ডাল, পেঁয়াজ ইত্যাদি (বাক্বারাহ ২/৬১)

This entry was posted in কুরআনে সবজি ও ফলসমূহের নাম নেই কেন? and tagged . Bookmark the permalink.