ছহীহ বুখারীর বর্ণনায় দেখা যায়, রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘আমি ঈসা, মূসা ও ইউনুসকে দেখছি যে, তারা তালবিয়া পাঠরত অবস্থায় তাওয়াফ করছেন। এভাবে দাজ্জালকেও দেখলাম’। এই হাদীছের ব্যাখ্যা কী?


ক্বিয়ামতের প্রাক্কালে ফিৎনা প্রকাশের পূর্বে দাজ্জাল মক্কা ও মদীনায় প্রবেশ করতে পারবে এবং হজ্জও করবে যেমনটি রাসূল (ছাঃ) স্বপ্নে দেখেছেন (বুখারী হা/৩৪৪০; মুসলিম হা/১৭১; ছহীহাহ হা/৩৯৮৩)। তবে ফিৎনার আবির্ভাবের পর দাজ্জাল কোনভাবেই মক্কা-মদীনায় প্রবেশ করতে পারবে না (বুখারী হা/১৮৮১,১৮৭৯,; মুসলিম হা/২৯৪৩; মিশকাত হা/২৭৪২)।  অবশ্য হাদীছটি সাধারণ স্বপ্নও হ’তে পারে। কেননা ঈসা, ইউনুস, মূসা (আঃ) কেউ জীবিত ছিলেন না। অথচ হাদীছে তাদের অবস্থা বর্ণনা করা হয়েছে। অনুরূপভাবে দাজ্জালের পরিচিতি বর্ণনা করার জন্য হয়তবা আল্লাহ দাজ্জালকে স্বপ্নের মাধ্যমে দেখিয়েছিলেন (ক্বাযী ইয়ায, শরহ মুসলিম ১/৫২২)। তবে প্রথম মতটিই অধিকতর বিশুদ্ধ। কারণ নবী-রাসূলদের স্বপ্ন সত্য (ইবনু হাজার, ফাৎহুল বারী ৬/৪৮৮-৮৯, ১২/৪১৬)

This entry was posted in দাজ্জাল সম্পর্কিত হাদীছের ব্যাখ্যা কী? and tagged . Bookmark the permalink.