কা‘বা ঘরের দরজায় কে প্রথম সোনার প্রলেপ দেয়? এটি কি শরী‘আতসম্মত?


কাবাগৃহকে সর্বপ্রথম স্বর্ণ-রৌপ্য দ্বারা কারুকার্যখচিত করেন উমাইয়া খলীফা ওয়ালীদ বিন আব্দুল মালিক (৮৬-৯৬ হি.)। সর্বশেষ ১৯৭৮ সালে কাবা ঘরের দরজা ২৮২ কেজি স্বর্ণের প্রলেপ দিয়ে সুসজ্জিত করেন সঊদী বাদশাহ খালিদ বিন আব্দুল আযীয আলে সঊদ (১৯৭৫-১৯৮২ খৃ.)। অধিকাংশ বিদ্বান স্বর্ণ-রৌপ্য সহ বিভিন্ন বস্ত্ত দ্বারা মসজিদকে অলংকৃত করাকে অপসন্দনীয় বলেছেন। কেননা তা ইসলামের সহজ-সরল সৌন্দর্যের পরিপন্থী এবং মুছল্লীদের একাগ্রতা বিনষ্টকারী। সেকারণ রাসূলূল্লাহ (ছাঃ) বলেছেন, মসজিদসমূহকে চাকচিক্যময় করে নির্মাণ করার জন্য আমি আদিষ্ট হইনি। ইবনু আববাস (রাঃ) বলেন, কিন্তু তোমরা একে জাঁকজমকপূর্ণ করবে যেভাবে ইহূদী-নাছারাগণ করত (আবুদাঊদ হা/৪৪৮; মিশকাত হা/৭১৮)তিনি বলেন, ক্বিয়ামতের অন্যতম আলামত হল এই যে, লোকেরা মসজিদ নিয়ে গর্ব করবে (আবুদাঊদ হা/৪৪৯; মিশকাত হা/৭১৯)অতএব মসজিদকে এভাবে সুসজ্জিত করা উচিত নয় এবং তা নিঃসন্দেহে অপচয়ের শামিল (বিস্তারিত দ্র. আল-মাওসূআতুল ফিক্বহিইয়াহ ২৩/২১৮-১৯; ছালাতুর রাসূল (ছাঃ) মসজিদ সম্পর্কে জ্ঞাতব্য অনুচ্ছেদ পৃ. ৩৮)

This entry was posted in কা‘বা ঘরের দরজায় সোনার প্রলেপ দেওয়া কি শরী‘আতসম্মত? and tagged . Bookmark the permalink.