Tag Archives: অনুষ্ঠান

কুরবানীর গোশত দ্বারা ওয়ালীমার মেহমানদারী করা যাবে কি? জনৈক আলেম বলেন, এটা চলবে না। কেবল ওয়ালীমার জন্য অন্ততপক্ষে একটি খাসি যবেহ করতে হবে। একথার সত্যতা আছে কি?


কথাটির সত্যতা নেই। কারণ কুরবানীর গোশত বিবাহতে খাওয়ানো যাবে না এমন কোন শর্ত নেই। তাছাড়া কুরবানীর গোশত ঈদের পরে জমা রেখে খাওয়া জায়েয (ইবনু মাজাহ হা/৩১৫৯, মিশকাত হা/১৭৬২)। তুরতুসী বলেন, কেউ যদি বিবাহের ওয়ালীমায় কুরবানীর গোশত খাওয়ায় সেটিই তার জন্য যথেষ্ট … Continue reading

Posted in কুরবানীর গোশত দ্বারা ওয়ালীমার মেহমানদারী করা যাবে কি? | Tagged , ,

হজ্জ থেকে ফিরে আসা উপলক্ষে আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের নিয়ে খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন করা যাবে কি?


কোন দীর্ঘ সফর থেকে ফিরে আসার পর এরূপ আয়োজন করা যায়। জাবের বিন আব্দুল্লাহ (রাঃ) হ’তে বর্ণিত তিনি বলেন, রাসূল (ছাঃ) যখন মদীনায় আগমন করেন, তখন তিনি একটি উট অথবা একটি গাভী যবহ করেন (বুখারী হা/৩০৮৯; মিশকাত হা/৩৯০৫)। হাদীছটির ব্যাখ্যায় ত্বীবী … Continue reading

Posted in হজ্জ থেকে ফিরে আসা উপলক্ষে আত্মীয়-স্বজন নিয়ে খাওয়া-দাওয়ার আয়োজন করা যাবে কি? | Tagged ,

শবেবরাত সহ বিভিন্ন বিদ‘আতী অনুষ্ঠান উপলক্ষে প্রতিবেশীর প্রদত্ত খাবার খাওয়া যাবে কি? খাওয়া না গেলে কি করতে হবে?


এধরনের বিদ‘আতী অনুষ্ঠানের জন্য তৈরীকৃত খাবার খাওয়া ও সেখানে উপস্থিত হওয়া সহ যেকোন প্রকার সহযোগিতা করা শরী‘আত সম্মত নয়। কারণ এটি উক্ত বিদ‘আতী কর্মে সহযোগিতার শামিল, যা নিষিদ্ধ (মায়েদাহ ৫/২)। কোন কারণবশতঃ গ্রহণ করা হ’লে তা পশু-পাখিকে খাইয়ে দিবে।

Posted in বিদ'আতীর কোন আমল কাজে আসবে কি?, বিদ‘আত ও তার ভয়াবহতা, বিদ‘আতী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে কি?, বিদ‘আতী অনুষ্ঠানে বাধ্যতামূলক অংশগ্রহণ কর‌লে করণীয় কি?, শবেবরাত বা বিদ‘আতী অনুষ্ঠানের খাবার খাওয়া যাবে কি? | Tagged , , ,

ছহীহ আক্বীদাসম্পন্ন জনৈক আলেম বলেন, জন্মদিন পালন করা দোষের কিছু নয়। কারণ কুরআন-হাদীছে কোথাও জন্মদিন পালন করতে নিষেধ করা হয়নি। এছাড়া এটি কোন ধর্মীয় অনুষ্ঠান নয়। কথাটির সত্যতা জানতে চাই।


কথাটি সঠিক নয়। রাসূল (ছাঃ) ও ছাহাবায়ে কেরামের জীবনে কোথাও এর প্রমাণ পাওয়া যায় না। বরং এটা অমুসলিমদের রীতি, যা মুসলিম সমাজে প্রবেশ করেছে। এসব থেকে রাসূল (ছাঃ) স্বীয় উম্মতকে সাবধান করে বলেন, তোমরা ইহূদী-নাছারাদের পদাঙ্ক অনুসরণ করবে হাতে হাতে … Continue reading

Posted in জন্মদিন পালন করা দোষের কিছু নয় কি? | Tagged , ,

বিবাহে সাহায্যের জন্য অনেক হিন্দু মহিলা আসে। তাদেরকে একাজে সহযোগিতা করা যাবে কি? কেননা তাদের বিবাহ অনুষ্ঠানে অনেক শিরকী কার্যকলাপ হয়ে থাকে।


সাধারণভাবে এরূপ সহযোগিতা করা যায়। তবে তাদেরকে যাকাতের মাল দেওয়া যাবে না। একবার রাসূল (ছাঃ)-এর নিকটে একটি রেশমী পোষাক হাদিয়া হিসাবে আসলে তিনি তা ওমর (রাঃ)-এর নিকটে পাঠিয়ে দেন। অতঃপর তিনি তা মক্কায় অবস্থানরত তার মুশরিক ভাইকে পরিধানের জন্য হাদিয়া … Continue reading

Posted in বিবাহে হিন্দুদের অনুষ্ঠানে সাহায্য করা যাবে কি? | Tagged , ,

মৃত ব্যক্তির জন্য ৩, ৫, ৯, ৪০ দিন পালন করার ব্যাপারে শরী‘আতের বিধান কি?


প্রচলিত এসব অনুষ্ঠান রাসূল (ছাঃ)-এর যুগে ছিল না। অতএব এগুলি বিদ‘আতের অন্তর্ভুক্ত এবং অবশ্য বর্জনীয়। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘যে ব্যক্তি আমাদের শরী‘আতে এমন কিছুর উদ্ভব ঘটালো, যা তার মধ্যে নেই, তা প্রত্যাখ্যাত’ (মুত্তাফাক্ব ‘আলাইহ, মিশকাত হা/১৪০)। জারীর বিন আব্দুল্লাহ আল-বাজালী (রাঃ) … Continue reading

Posted in ৪০ দিন পালন করা যাবে কি? | Tagged ,

আমাদের এখানে পীরের মাজারের পক্ষ থেকে প্রতিবছর ঐতিহ্যবাহী ওরস হয়। এ উপলক্ষে মেলা এবং বিরানী খাওয়ানো হয়। উক্ত মেলা থেকে কিছু কেনাকাটা বা তাদের বিতরণকৃত বিরানী খাওয়া যাবে কি?


যাবে না। এসব স্পষ্টভাবে বিদ‘আতী অনুষ্ঠান। এছাড়া এসব স্থানে বহু শিরকী কর্মকান্ড হয়ে থাকে। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যে ব্যক্তি আমাদের এই দ্বীনের মধ্যে এমন কিছু নতুন আবিষ্কার করবে যা এর অন্তর্ভুক্ত নয় তা প্রত্যাখ্যাত’ (মুত্তাফাক্ব ‘আলাইহ, মিশকাত হা/১৪০)। তাদের যেকোন কাজে … Continue reading

Posted in পীরের মাজারের অনুষ্ঠানের বিরানী খাওয়া যাবে কি? | Tagged ,

অমুসলিমদের আয়োজিত ধর্মীয় মেলায় স্টল দিয়ে কিছু বিক্রি করা যাবে কি?


যাবে না। কারণ যেসব স্থানে শিরক-বিদ‘আত ও শরী‘আত বিরোধী কার্যকলাপ হয় সেখানে যাওয়া, বেচা-কেনা ও ব্যবসা করা এবং সহযোগিতা করা গুনাহের কাজ। আল্লাহ বলেন, ‘নেকী ও আল্লাহভীতির কাজে পরস্পরকে সহযোগিতা কর এবং পাপ ও সীমালংঘনের কাজে কাউকে সাহায্য করো না’ (মায়েদাহ ৫/২)।

Posted in অমুসলিমদের আয়োজিত ধর্মীয় মেলায় স্টল দিয়ে কিছু বিক্রি করা যাবে কি? | Tagged ,

বিবাহের ক্ষেত্রে বর্তমানে বৃহৎ আকারে ওয়ালীমা করার যে সামাজিক রীতি প্রচলিত রয়েছে, এরূপ ব্যয়বহুল অনুষ্ঠান কি অপচয়ের অন্তর্ভুক্ত হবে?


শরী‘আতে ওয়ালীমা করার জন্য জোর তাকীদ এসেছে। তাই সামর্থ থাকলে এরূপ করায় বাধা নেই। আল্লাহ তা‘আলা বান্দার উপর তাঁর প্রদত্ত নে‘মতের নিদর্শন দেখতে ভালোবাসেন (আবুদাউদ হা/;৪০৬৩; মিশকাত হা/৪৩৫২; ছহীহুল জামে‘ হা/২৫৪)। রাসূল (ছাঃ) একটি বকরী দিয়ে হ’লেও ওয়ালীমা করার নির্দেশ দিয়েছেন (বুখারী … Continue reading

Posted in অনুষ্ঠান বিবাহের ক্ষেত্রে অপচয়ের অন্তর্ভুক্ত হবে কি?, বিবাহে ব্যয়বহুল অনুষ্ঠান কি অপচয়ের অন্তর্ভুক্ত হবে? | Tagged ,

আমি কিছু নারীকে কুরআন পড়াই। আমাদের নিজস্ব কোন ফান্ড না থাকায় তাদের নিকট থেকে সাধ্যনুযায়ী কিছু টাকা জমা করি এবং তাদের মাঝে বিভিন্ন সময়ে প্রতিযোগিতা করে উক্ত অর্থ দিয়ে তার পুরস্কার ক্রয় করে তাদেরকে দেই। এভাবে টাকা নিয়ে পুরস্কার দেওয়া জুয়ার অন্তর্ভুক্ত হবে?


এটি জুয়ার অন্তর্ভুক্ত হবে না। তাছাড়া কুরআন শিক্ষার বিনিময় গ্রহণ করায় কোন দোষ নেই। রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, যে বস্ত্তর উপর তোমরা পারিশ্রমিক গ্রহণ কর, সেগুলির মধ্যে সর্বাপেক্ষা বেশী হকদার হ’ল আল্লাহর কিতাব (বুখারী, মিশকাত হা/২৯৮৫; শাওকানী, নায়লুল আওত্বার ৫/৩৪৬)। 

Posted in কুরআন প্রতিযোগিতাই চাঁদা উঠিয়ে তাদেরকেই পুরুস্কার দেওয়া যাবে কি? | Tagged , ,

মোবাইল, টেলিভিশন, সাউন্ডবক্স ইত্যাদি মেরামত করা জায়েয কি? এসব গান-বাজনা ও সিনেমা দেখার কাজে ব্যবহার করা হয় তা জানা সত্ত্বেও মেরামত করা যাবে কি?


এগুলির ব্যবসা ও মেরামত করায় শরী‘আতে কোন বাধা নেই। কারণ এগুলি বৈধ-অবৈধ উভয় কাজেই ব্যবহার হয়। সুতরাং এর অবৈধ ব্যবহারের জন্য ব্যবহারকারী দায়ী হবে, মেরামতকারী নয়। আল্লাহ বলেন, ‘একের পাপের বোঝা অন্যে বহন করবে না’ (আন‘আম ৬/১৬৪)।

Posted in মোবাইল টেলিভিশন সাউন্ডবক্স ইত্যাদি মেরামত করা জায়েয হবে কি? | Tagged ,

বিবাহের সময় ছেলে-মেয়েদের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান করা যাবে কি?


এগুলি বিজাতীয় কুসংস্কার থেকে এসেছে। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) এরশাদ করেন, ‘যে ব্যক্তি যে সম্প্রদায়ের সাদৃশ্য অবলম্বন করবে, সে ব্যক্তি সেই সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত বলে গণ্য হবে’ (আহমাদ, আবুদাঊদ, মিশকাত হা/৪৩৪৭ ‘পোষাক’ অধ্যায়)। অতএব এগুলি অবশ্যই পরিত্যাজ্য।

Posted in বিবাহের সময় ছেলে-মেয়েদের গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান করা যাবে কি? | Tagged ,

পহেলা বৈশাখ উদযাপনে শরী‘আতে কোন বাধা আছে কি? এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত মেলা থেকে কাপড়-চোপড় কেনা যাবে কি?


বৈশাখ’ উদযাপন ‘বর্ষবরণ’ প্রভৃতি অনৈসলামী প্রথা। যা থেকে মুসলিমকে অবশ্যই বিরত থাকতে হবে। হযরত আনাস (রাঃ) হ’তে বর্ণিত, নবী করীম (ছাঃ) যখন মদীনায় আগমন করেন, তখন মদীনাবাসীদের দু’টি উৎসব পালন করতে দেখে তিনি তাদের বলেন, তোমাদের এ দু’টি দিন কেমন? … Continue reading

Posted in পহেলা বৈশাখ উদযাপনে শরী‘আতে কোন বাধা আছে কি? | Tagged

ঈদগাহের মাঠে খেলাধূলা সহ বিজয় দিবস, পহেলা বৈশাখ ইত্যাদি অনুষ্ঠান করা যাবে কি?


ঈদগাহের মাঠে বিজয় দিবস, পহেলা বৈশাখ ও অন্যান্য দিবস পালনার্থে কোন অনুষ্ঠান করা বৈধ নয়। কারণ অমুসলিমদের অনুকরণে পালিত এসব দিবসের সাথে ইসলামের কোনই সম্পর্ক নেই। খেলাধূলা থেকেও দূরে থাকা কর্তব্য। কেননা এতে ঈদগাহের ধর্মীয় ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হয়।

Posted in ঈদগাহের মাঠে খেলাধূলা সহ বিজয় দিবস পহেলা বৈশাখ অনুষ্ঠান করা যাবে কি? | Tagged ,

কোন অনুষ্ঠান বা সম্মেলনের শেষে সম্মিলিতভাবে হাত তুলে মুনাজাত করা যাবে কি?


কোন অনুষ্ঠান বা সম্মেলন শেষে সম্মিলিতভাবে হাত তুলে মুনাজাত করা ছহীহ হাদীছ দ্বারা প্রমাণিত নয়। অতএব এভাবে দো‘আ করা বিদ‘আত (বিস্তারিত )। বরং এসময় মজলিস ভঙ্গের শরী‘আত নির্দেশিত দো‘আটি পাঠ করবে (তিরযিমী হা/৩৪৩৩; (বিস্তারিত ))।

Posted in মুনাজাত করা যাবে কি অনুষ্ঠান বা সম্মেলনের শেষে সম্মিলিতভাবে হাত তুলে? | Tagged ,

‘ইজতেমা’ অর্থ কি? রাজশাহীতে অনুষ্ঠিত ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’-এর তাবলীগী ইজতেমা এবং ঢাকায় অনুষ্ঠিত ‘বিশ্ব ইজতেমা’র মধ্যে পার্থক্য কি?


‘ইজতেমা’ অর্থ সম্মেলন, সমাবেশ, বৈঠক, একত্রিত হওয়া ইত্যাদি। ‘তাবলীগী ইজতেমা’ অর্থ দা‘ওয়াতী সমাবেশ। ‘আহলেহাদীছ আন্দোলন বাংলাদেশ’ প্রতিবছর রাজশাহীর নওদাপাড়ায় ‘তাবলীগী ইজতেমা’র আয়োজন করে থাকে। সর্বস্তরের জনগণের নিকট অহিভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার উদাত্ত আহবান জানানোর লক্ষ্যেই এই মহাসমাবেশের আয়োজন করা হয়। এই … Continue reading

Posted in ইজতেমা অর্থ কি?, তাবলীগী ইজতেমা এবং ঢাকায় অনুষ্ঠিত ‘বিশ্ব ইজতেমা’র মধ্যে পার্থক্য কি? | Tagged ,

স্কুল-কলেজে বোর্ড পরীক্ষার বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে নাচ-গান, ছাত্র-ছাত্রীদের মাল্যদান ও ছবি তোলা ইত্যাদি বিভিন্ন প্রকার শরী‘আতবিরোধী কার্যকলাপ হয়ে থাকে। এসব অনুষ্ঠানে যোগদান করা যাবে কি?


এ জাতীয় শরী‘আতবিরোধী অনুষ্ঠানে যোগদান করা বা আর্থিকভাবে সহযোগিতা করা সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ (মায়েদাহ ২)।

Posted in স্কুল-কলেজে অনুষ্ঠানে যোগদান করা যাবে কি? | Tagged

কেউ মৃত্যুবরণ করলে তার পরিবারের সদস্যদের জন্য ৪০ দিন যাবৎ গৃহ ত্যাগ করা যাবে না বলে শরী‘আতে কোন নির্দেশনা আছে কি?


এরূপ কোন নির্দেশনা নেই। এগুলি কুসংস্কারের অন্তর্ভুক্ত। বরং স্বামী মারা গেলে কেবল স্ত্রী স্বামীর বাড়ীতে ৪ মাস ১০ দিন শোক পালন করবে (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/৩৩৩০-৩২, ৩৩৩৪)। এসময় একান্ত প্রয়োজন ব্যতীত বাড়ীর বাইরে যাবে না এবং কোন সাজ-সজ্জা করবে না (ইবনু তায়মিয়াহ, … Continue reading

Posted in মৃত্যুবরণ করলে পরিবারের সদস্যদের জন্য ৪০ দিন যাবৎ গৃহ ত্যাগ করা যাবে কি? | Tagged , ,

আমি একজন পুলিশ। দুর্গাপূজার সময় দায়িত্বরত অবস্থায় মন্দির থেকে প্রদত্ত টিফিন খাওয়া যাবে কি?


পূজা উপলক্ষে তাদের দেয়া টিফিন খাওয়া যাবে না। কারণ এতে শিরকের সমর্থন ও সহযোগিতা করা হবে। আল্লাহ তা‘আলা পাপ ও সীমালংঘনের কাজে সহযোগিতা করতে নিষেধ করেছেন (মায়েদাহ ৫/২; লাজনা দায়েমা, ফৎওয়া নং ২৮৮২)।

Posted in অমুসলিম বন্ধুর বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে কি?, অমুসলিমদের বানানো মিষ্টি, অমুসলিমদের যবেহকৃত পশুর গোশত খাওয়া জায়েয হবে কি?, অমুসলিমের ইফতারী খাওয়া জায়েয হবে কি?, মন্দির থেকে প্রদত্ত টিফিন খাওয়া যাবে কি? | Tagged ,

অমুসলিমদের ধর্মীয় অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বিনিময় করা অথবা সেখানে অংশগ্রহণ করা জায়েয হবে কি?


অমুসলিমদের ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে শুভেচ্ছা বিনিময় ও তাতে অংশগ্রহণ করা মুসলমানদের জন্য নিষিদ্ধ। এর মাধ্যমে তাদের বাতিল ধর্মবিশ্বাসকে সমর্থন করা হয়, যা হারাম। আল্লাহ বলেন, ‘যে ব্যক্তি ইসলাম ব্যতীত অন্য কোন দ্বীন তালাশ করে, তার নিকট থেকে তা কখনোই কবুল করা … Continue reading

Posted in অমুসলিম প্রতিবেশীর বাড়ীতে যাতায়াত করা যাবে কি?, অমুসলিম বন্ধুর বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে কি?, অমুসলিমকে বন্ধু হিসাবে গ্রহণ করা যা‌বে কি?, অমুসলিমের ইফতারী খাওয়া জায়েয হবে কি? | Tagged

কোন মুসলিম বা অমুসলিমকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো যাবে কি?


জন্মদিবস, মৃত্যুদিবস, শোক দিবস সহ যত দিবস পালিত হয়, তার সাথে ইসলামের কোনই সম্পর্ক নেই। এগুলি স্রেফ জাহেলিয়াত এবং বিজাতীয় অপসংস্কৃতি মাত্র। অতএব এগুলি পালন করা, এর জন্য শুভেচ্ছা জানানো, কার্ড পাঠানো ইত্যাদি সবই নিষিদ্ধ। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘যে ব্যক্তি … Continue reading

Posted in জন্মদিন উপলক্ষে নবজাতক ছেলেকে স্বর্ণের আংটি বা চেইন দেওয়া, জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো যাবে কি? | Tagged

ইসলামের দৃষ্টিতে কোন দিবস পালন করা কোন পর্যায়ের শিরক? কিভাবে এটা শিরকের পর্যায়ভুক্ত গোনাহে পরিণত হয় জানিয়ে বাধিত করবেন।


দিবস পালন শিরক নয়। তবে নিঃসন্দেহে বিদ‘আত।  যেমন- ঈদে মীলাদুন্নবী, শবেবরাত, শবেমি‘রাজ ইত্যাদি। রাসূল (ছাঃ) ও ছাহাবায়ে কেরামের যামানায় এসব দিবসের কোন অস্তিত্ব ছিল না। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যে ব্যক্তি আমাদের শরী‘আতে এমন কিছু নতুন সৃষ্টি করল, যা তার মধ্যে … Continue reading

Posted in দিবস পালন করলে শিরক হয় কি? | Tagged ,

বর্তমানে টিভি পর্দায় ইসলামী অনুষ্ঠানের পাশাপাশি বাদ্যযন্ত্রের সাহায্যে সুবহানাল্লাহ, আল-হামদুলিল্লাহ, আল্লাহু আকবার বাজানো হচ্ছে। এটা কি শরী’আত সম্মত?


ইসলামে বাদ্যযন্ত্র হারাম (লোকমান ৬; বুখারী হা/৫৫৯০, মিশকাত হা/৫৩৪৩)। যারা আল্লাহ্র সুন্দর নাম বাজনার সাথে উচ্চারণ করছে, ক্বিয়ামতের দিন তারা আরো কঠিন শাস্তির সম্মুখীন হবে।

Posted in বাদ্যযন্ত্র হালাল কি? | Tagged | Leave a comment

স্থির চিত্র ও ভিডিও চিত্রের ব্যাপারে শরী‘আতের হুকুম কি? বিভিন্ন ইসলামী অনুষ্ঠানেও ভিডিও প্রদর্শন করা হচ্ছে। রাসূল (ছাঃ) কোন ধরনের ছবি নিষেধ করেছিলেন এবং তার উদ্দেশ্য কী ছিলো? বিভিন্ন প্রয়োজনে কোন ছবি ধারণ করলে পাপ হবে কি?


সম্মান ও মর্যাদা দেওয়ার উদ্দেশ্যে কোন প্রাণীর ছবি তোলা এবং তা টাঙানো বা স্থাপন করা হারাম।কারণ এগুলি মূর্তিপূজার শামিল। রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, প্রত্যেক ছবি নির্মাতা জাহান্নামী (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/৪৪৯৮, ‘ছবিসমূহ’ অনুচ্ছেদ)। তবে বাধ্যগত কারণে, জনগুরুত্বপূর্ণ উদ্দেশ্যে ও রেকর্ড রাখার … Continue reading

Posted in ইসলামী অনুষ্ঠান ভিডিও করা যাবে কি?, স্থির চিত্র ও ভিডিও চিত্রের ব্যাপারে শরী‘আতের হুকুম কি? | Tagged , | Leave a comment

কোন ব্যক্তি মারা গেলে জানাযায় আগত লোকদের জন্য গরু-খাসি যবহ করা হয়। অতঃপর দাফন কার্য সম্পন্ন করে খানাপিনা করা হয়। উক্ত আমল শরী‘আত সম্মত কি?


মৃত ব্যক্তিকে কেন্দ্র করে এ দেশে যত বিদ‘আত চালু আছে, উক্ত প্রথা তার অন্যতম। এর পরিণাম অত্যন্ত ভয়াবহ (নাসাঈ হা/১৫৭৮)। রাসূল (ছাঃ), ছাহাবায়ে কেরাম ও তাবেঈদের স্বর্ণযুগে এসব প্রথার অস্তিত্ব ছিল না। মৃত্যুর পরে প্রচলিত বিদ‘আত সমূহ (البدع المروجة بعد الموت) … Continue reading

Posted in মৃত ব্যক্তির উদ্দেশ্যে কুরআন খতম বা অনুষ্ঠান করা যাবে কি?, মৃত ব্যাক্তির বাড়ীতে খানা পিনার ব্যবস্থা করা যাবে কি? | Tagged , , | Leave a comment

মৃত্যু বা জন্ম দিবস উপলক্ষে সভা, সমিতি, সম্মেলন করা যাবে কি?


জন্ম বা মৃত্যু দিবস পালন করা এবং সে উপলক্ষে অনুষ্ঠানাদি করা বিধর্মীয় সংস্কৃতি। এগুলোর সাথে ইসলামের কোনরূপ সম্পর্ক নেই। রাসূল (ছাঃ) ও ছাহাবায়ে কেরাম কখনো এসব পালন করেননি। তিনি বলেন, যে ব্যক্তি বিধর্মীদের সাদৃশ্য অবলম্বন করবে, সে তাদের মধ্যে গণ্য … Continue reading

Posted in মৃত্যু বা জন্ম দিবস উপলক্ষে সভা সমিতি সম্মেলন করা যাবে কি? | Tagged , | Leave a comment

কোন ব্যক্তির আগমন বা কোন অনুষ্ঠান উপলক্ষে তাকবীর দেওয়া বা তার নামে শ্লোগান দেওয়া যাবে কি?


কোন সম্মানী ব্যক্তির আগমনে তাকবীর, শ্লোগান বা অন্য কোন ধ্বনি দেওয়া শরী‘আত পরিপন্থী নয়। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) হিজরতকালে মদীনায় পৌঁছলে এবং বদর যুদ্ধ ও তাবুক সফর থেকে বিজয়ী বেশে মদীনায় ফিরলে মুসলিমগণ উচ্চৈঃস্বরে তাকবীর দিয়ে তাঁকে স্বাগত জানান (দ্রঃ যাদুল মা‘আদ … Continue reading

Posted in ব্যক্তির আগমন উপলক্ষে তাকবীর দেওয়া যাবে কি? | Tagged | Leave a comment

কোন প্রয়োজন পূরণার্থে জালালী খতম কোন কোন এলাকায় ব্যাপকভাবে প্রচলিত। ইমামগণকে এজন্য যথেষ্ট পরিমাণ অর্থও প্রদান করা হয়। শরী‘আতে এর কোন ভিত্তি আছে কি?


ইসলামে জালালী খতম বলে কিছু নেই। এর জন্য আলেমদেরকে ডাকা ও অনুষ্ঠান করা বিদ‘আত। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যে দ্বীনের মধ্যে এমন কিছু আবিষ্কার করল যা তার মধ্যে নেই তা প্রত্যাখ্যাত’ (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হা/১৪০, ‘কুরআন-সুন্নাহকে অাঁকড়ে ধরা’ অনুচ্ছেদ)। এরূপ খতম … Continue reading

Posted in জালালী খতমের কোন অর্খ আছে কি? | Tagged , | Leave a comment

কোন অমুসলিম বন্ধুর বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে কি?


সামাজিক কারণে অমুসলিমদের দাওয়াত গ্রহণ করা যাবে। কিন্তু তাদের যবেহকৃত পশুর গোশত খাওয়া যাবে না (বাক্বারাহ ১৭৩)। তবে যেহেতু তাদের অনুষ্ঠানে অনৈসলামিক কার্যকলাপ হয়ে থাকে তাই এরূপ অনুষ্ঠানে যাওয়া বিরত থাকাই উচিত। উল্লেখ্য যে, তাদের সঙ্গে আন্তরিক বন্ধুত্ব স্থাপন করতে … Continue reading

Posted in অমুসলিম বন্ধুর বিবাহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করা যাবে কি? | Tagged , | Leave a comment

থার্টিফার্স্ট নাইট, ভালোবাসা দিবস, নববর্ষ ইত্যাদি পালন সম্পর্কে শরী‘আতের বিধান:


থার্টিফার্স্ট নাইট, ভালোবাসা দিবস, নববর্ষ ইত্যাদি পালন করা নিষিদ্ধ। কারণ প্রথমতঃ সব ধরনের দিবস পালন বিজাতীয় অপসংস্কৃতির অনুকরণ মাত্র। যা নিষিদ্ধ (আবূদাঊদ হা/৪০৩১, তিরমিযী হা/২৬৯৫; সিলসিলা ছহীহাহ হা/২১৯৪)। দ্বিতীয়তঃ এসব কিছুর আয়োজনের দ্বারা বিপুল পরিমাণ অর্থ ও সময়ের অপচয় হয়। … Continue reading

Posted in নববর্ষ ইত্যাদি পালন সম্পর্কে শরী‘আতের বিধান, নববর্ষ পালন | Tagged | Leave a comment