Tag Archives: আমীন বলা

জোরে আমীন বললে মসজিদ থেকে অপমান করে বের করে দেয়। এক্ষণে করণীয় কি? বিশেষতঃ জুম‘আর ছালাতের ক্ষেত্রে করণীয় কি? সেটাও কি বাড়িতে পড়া যাবে?


বিশুদ্ধ আক্বীদা ও আমলসম্পন্ন ইমামের পিছনে ছালাত আদায়ের চেষ্টা করবে। তবে বাধ্যগত অবস্থা্য় অনুচ্চস্বরে আমীন বলে হ’লেও জামা‘আতে ছালাত আদায় করবে। এক্ষেত্রে সুন্নাতের উপর আমল করায় বাধাদানকারী ব্যক্তি গুনাহগার হবে। উল্লেখ্য যে, উক্ত সুন্নাতের উপর রাসূল (ছাঃ) ও ছাহাবায়ে কেরাম … Continue reading

Posted in আমীন জোরে বলতে না দিলে করণীয় কি? | Tagged

জনৈক ব্যক্তি বলেন, হাদীছে সূরা ফাতিহা শেষে কেবল একবার নয় তিনবার আমীন বলার নির্দেশও এসেছে। সুতরাং হাদীছ নয়, বরং ফক্বীহগণ হাদীছ থেকে কি দলীল নিয়েছেন তা দেখতে হবে। একথা সঠিক কি?


রাসূল (ছাঃ) সূরা ফাতিহা শেষে তিনবার আমীন বলেছেন মর্মে বর্ণিত হাদীছটি যঈফ এবং ছহীহ হাদীছের বিরোধী (মু‘জামুল কাবীর হা/৩৮; মাজমা‘উয যাওয়ায়েদ হা/২৬৬৭)। দ্বিতীয়তঃ অত্র হাদীছটি ইবনু মাজাহতে বর্ণিত হয়েছে, কিন্তু সেখানে তিনবার আমীন বলার কথা নেই (ইবনু মাজাহ হা/৮৫৫; মিশকাত হা/৮৪৫; ছহীহাহ … Continue reading

Posted in আমীন সূরা ফাতিহা শেষে তিনবার বলার কথা সঠিক কি? | Tagged

জনৈক আলেম বলেন, বুখারীতে জোরে আমীন বলার কোন হাদীছ নেই। বক্তব্যটি কতটুকু সঠিক?


উক্ত বক্তব্য সঠিক নয়। ইমাম বুখারী (রহঃ) ‘ইমাম ও মুক্তাদীর জোরে আমীন বলা’ শিরোনামে অধ্যায় রচনা করেছেন (বুখারী ৩/৩১৯)। ‘ইমামের সশব্দে আমীন বলা’ অনুচ্ছেদে ইমাম বুখারী বলেন, আতা‘ (রহঃ) বলেন, আমীন হ’ল দো‘আ। তিনি আরো বলেন, আব্দুল্লাহ ইবনু যুবায়ের (রাঃ) ও … Continue reading

Posted in আমীন জোরে বলা বুখারীতে কোন হাদীছ আছে কি? | Tagged

সশব্দে আমীন বলার ক্ষেত্রে কণ্ঠস্বর কিরূপ উচু করা যাবে? জনৈক আলেম বলেন, পাশের দুইজন পর্যন্ত শুনতে পায় এরূপ জোরে বলতে হবে। এক্ষণে সঠিক সমাধান কি?


ইমাম-মুক্তাদী উভয়ে স্বাভাবিক স্বরের চেয়ে একটু উঁচু স্বরে আমীন বলবে। হাদীছে আমীন বলার ক্ষেত্রে ‘রাফা‘আ’, ‘মাদ্দা’, ‘জাহারা’ ইত্যাদি শব্দ এসেছে। যার দ্বারা স্বাভাবিক ক্বিরাআতের চেয়ে উঁচু স্বরে বলা বুঝায়। ইমাম বুখারী (রহঃ)-এর মতে, আমীনের শব্দে মসজিদ যেন গুঞ্জরিত হয়ে উঠে (বুখারী … Continue reading

Posted in আমীন সশব্দে বলার ক্ষেত্রে কণ্ঠস্বর কিরূপ উচু করা যাবে?, সশব্দে আমীন বলার ক্ষেত্রে কণ্ঠস্বর কিরূপ উচু করা যাবে? | Tagged

জেহরী ছালাতে ইমাম আমীন বলতে ভুলে গেলে বা ইচ্ছাকৃতভাবে না বললে মুক্তাদীদের আমীন বলতে হবে কি?


আমীন বলা ইমাম-মুক্তাদী উভয়ের জন্য যরূরী। এক্ষণে ইমাম আমীন না বললেও মুক্তাদীরা আমীন বলবে। কারণ রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যখনই ইমাম ওয়া লাযযা-ল্লীন’ বলবে, তখন তোমরা আমীন বল’। কেননা যার আমীন ফেরেশতাদের আমীন-এর সঙ্গে মিলে যাবে, তার পূর্বেকার সকল গুনাহ মাফ … Continue reading

Posted in আমীন বলতে ভুলে গেলে মুক্তাদীদের আমীন বলতে হবে কি? | Tagged

জনৈক আলেম বলেন, রাসূল (ছাঃ) সূরা ফাতিহা পড়ার পর মাঝে মাঝে জোরে আমীন বলতেন লোকদেরকে এ ব্যাপারে জানানোর জন্য। এটা তার সবসময়কার আমল ছিল না। একথার সত্যতা জানতে চাই।


উক্ত দাবীটি সঠিক নয়। ইমাম যখন সশব্দে সূরা ফাতিহা শেষ করবেন, তখন মুক্তাদীগণও সাথে সাথে সশব্দে আমীন বলবেন। কেননা রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) এরশাদ করেন ‘যখনই ইমাম ওয়া লাযযা-ল্লীন’ বলবে অন্য বর্ণনায় যখন ‘আমীন’ বলবেন, তখন তোমরাও আমীন বল’। কেননা যার আমীন … Continue reading

Posted in আমীন রাসূল (ছাঃ) সূরা ফাতিহা পড়ার পর মাঝে মাঝে জোরে বলতেন কি? | Tagged

ছালাতে আয়াতের জওয়াব সরবে দিতে হবে না নীরবে?


আয়াতের জওয়াব নীরবে দিতে হবে। কারণ ছালাতের শুরু হ’তে শেষ পর্যন্ত শুধুমাত্র ‘আমীন’ সরবে বলার স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায় (আবুদাঊদ, তিরমিযী, দারাকুৎনী, ইবনু মাজাহ, মিশকাত হা/৮৪৫)। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘মুছল্লী তার প্রতিপালকের সাথে চুপে চুপে কথা বলে’ (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হা/৭১০)।

Posted in ছালাতে আয়াতের জওয়াব সরবে দিতে হবে না নীরবে? | Tagged ,

বিদ‘আতী ইমামের পিছনে ঈদায়নের ছালাত আদায়ের সময় ‘আমীন বলা’ ও ‘রাফউল ইয়াদায়নে’র ন্যায় অতিরিক্ত তাকবীর সমূহ একাকী আদায় করলে তাতে শরী‘আতে কোন বাধা আছে কি?


একাকী পৃথকভাবে তাকবীর দেওয়া যাবে না। কেননা হাদীছে বর্ণিত ইমামের অনুসরণ দ্বারা তার ছালাতের তাকবীরসমূহ অনুসরণের প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে। একদা রাসূল (ছাঃ) ছালাতরত অবস্থায় ময়লা থাকার কারণে জুতা খুলে ফেললে ছাহাবায়ে কেরামও জুতা খুলে ফেলেন। পরবর্তীতে রাসূল (ছাঃ) তাদেরকে … Continue reading

Posted in বিদ‘আতী ইমামের পিছনে ছালাত আদায়ের সময় করণীয়।, বিদাতী ইমা‌মের পিছ‌নে নামাজ পড়া যা‌বে কী? | Tagged , , ,

সূরাবাক্বারাহশেষকরে ‘আমীন’ বলাযাবেকি?


ছালাতের মধ্যে পাঠ করা হ’লে আমীন বলা যাবে না। কারণ হাদীছ দ্বারা তা সাব্যস্ত হয়নি। তবে ছালাত ছাড়া অন্য সময়ে দো‘আ হিসাবে পড়লে আমীন বলা যাবে।

Posted in সূরা বাক্বারাহ শেষে আমরা ‘আমীন’ বলে থাকি। এর দলীল কী? | Tagged

ছালাতের মধ্যে সূরা বাক্বারাহ শেষে আমরা ‘আমীন’ বলে থাকি। এর দলীল জানতে চাই।


সূরা বাক্বারাহ শেষে ‘আমীন’ বলার পক্ষে রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) ও খুলাফায়ে রাশেদীন থেকে কোন দলীল পাওয়া যায় না। তবে ছাহাবী মু’আয বিন জাবাল (রাঃ) থেকে মওকূফ সূত্রে একটি বর্ণনা পাওয়া যায় (তাফসীর ইবনে কাছীর, ২৮৬ আয়াত)। এর বর্ণনাকারী আবু ইসহাক্ব ও … Continue reading

Posted in সূরা বাক্বারাহ শেষে আমরা ‘আমীন’ বলে থাকি। এর দলীল কী? | Tagged | Leave a comment

জনৈক মাওলানা বললেন যে, ছালাতের মধ্যে ইমাম আমীন বলার পর সূরা ফাতেহা পড়তে হবে। ইমামের সঙ্গে সঙ্গে পড়া যাবে না। এ ব্যাপারে জানিয়ে বাধিত করবেন।


উক্ত বক্তব্য সঠিক নয়। বরং ইমামের ক্বিরাআতের সাথে সাথে মুক্তাদীগণও নীরবে সূরা ফাতেহা পাঠ করবে (মুসলিম, মিশকাত হা/৮২৩; ছহীহ আবূ দাঊদ হা/৭৩৬-৩৭; ছহীহ তিরমিযী হা/২৫৭; মিশকাত হা/৮৫৪ ‘ছালাতে ক্বিরাআত’ অনুচ্ছেদ)। ইমামের আমীন বলার পর মুক্তাদীর সূরা ফাতিহা পাঠ করা এবং … Continue reading

Posted in ছালাতের মধ্যে ইমাম আমীন বলার পর সূরা ফাতেহা পড়তে হবে। ইমামের সঙ্গে | Tagged | Leave a comment

ছালাতে সূরা ফাতিহার পর তিনবার আমীন বলা যাবে কি?


ছালাতে সূরা ফাতিহার পর তিনবার আমীন বলা সম্পর্কে ত্বাবারাণীতে যে হাদীছ বর্ণিত হয়েছে তা যঈফ (ত্বাবারাণী কাবীর হা/১৭৫০৭)। উক্ত বর্ণনার সনদে আবু ইসহাক্ব ও সা‘দ ইবনু ছালত নামে দুইজন ত্রুটিপূর্ণ রাবী আছেন। মুহাদ্দিছগণ তাদেরকে যঈফ বলেছেন (তানক্বীহুল কালাম, পৃঃ ২৯৩-৯৪)। … Continue reading

Posted in ছালাতে সূরা ফাতিহার পর তিনবার আমীন বলা যাবে কি? | Tagged | Leave a comment

সূরা বাক্বারাহর শেষ আয়াত পাঠের পর জোরে আমীন বলার কোন দলীল আছে কি? ছালাতের মধ্যে ইমাম-মুক্তাদী উভয়কেই কি আয়াতের জবাব দিতে হবে?


এ ব্যাপারে কোন ছহীহ দলীল পাওয়া যায় না। একটি বর্ণনা পাওয়া যায়, যা যঈফ (মুছান্নাফ ইবনু আবী শায়বা হা/৮০৬২, ইবনু জারীর হা/৬৫৪১, ইবনু কাছীর ১/৭৩৮)। যে সকল আয়াতের জবাব দানের বিষয়টি ছহীহ হাদীছ দ্বারা প্রমাণিত, সেসব আয়াতের জবাব ইমাম-মুক্তাদী উভয়েরই … Continue reading

Posted in সূরা বাক্বারাহর শেষ আয়াত পাঠের পর জোরে আমীন বলার কোন দলীল আছে কি? | Tagged | Leave a comment