Tag Archives: গীবত / অপবাদ

স্ত্রীর বিরুদ্ধে কেউ যেনার অপবাদ দিলে সেটা কি লে‘আন হিসাবে গণ্য হবে এবং স্ত্রী তালাক হয়ে যাবে?


স্ত্রীর বিরুদ্ধে যেনার অপবাদ দিলেই তা লে‘আন হিসাবে গণ্য হবে না এবং এতে বিবাহ বিচ্ছেদও হবে না। বরং এরূপ ক্ষেত্রে করণীয় হ’ল স্বামী প্রথমতঃ স্ত্রীর যেনার পক্ষে চারজন সাক্ষী উপস্থাপন করবে। তা সম্ভব না হ’লে আদালতে বিচারকের উপস্থিতিতে লে‘আন করবে। … Continue reading

Posted in স্ত্রীর বিরুদ্ধে যেনার অপবাদ দিলে সেটা কি স্ত্রী তালাক হয়ে যাবে? | Tagged , ,

কোন নারীর মন্দ চরিত্রের ব্যাপারে কাউকে তার কবল থেকে বাঁচানোর উদ্দেশ্যে জানালে তা গীবত হিসাবে গণ্য হবে কি?


বিষয়টি বক্তার দৃষ্টিতে সত্য হ’লে গীবত হিসাবে গণ্য হবে না। বরং তাকে সংশোধন বা তার বা অন্য কারো কল্যাণে এরূপ নারীর কথা গোপনে বলা যাবে (নববী, রিয়াযুছ ছালেহীন, ২৫৬ অনুচ্ছেদ, পৃঃ ৫৭৫)।

Posted in মন্দ চরিত্রের ব্যাপারে সতর্ক করার জন্য কাউকে সত্য বললে গীবত হবে কি? | Tagged

পরনিন্দা বা গীবত করলে ওযূ ও ছিয়াম নষ্ট হবে কি?


উক্ত মর্মে বর্ণিত হাদীছটি মওযূ‘ বা জাল। যেমন- আনাস (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেছেন, ‘পাঁচটি কর্ম ছিয়াম ও ওযূকে বিনষ্ট করে : (১) মিথ্যা কথা (২) গীবত বা পরনিন্দা (৩) চোগলখুরী (অর্থাৎ একের কথা অন্যকে লাগিয়ে দু’জনের মধ্যে ঝগড়া বাঁধিয়ে … Continue reading

Posted in গীবত করলে ওযূ ও ছিয়াম নষ্ট হবে কি? | Tagged

আমাদের মসজিদের কিছু মুছল্লী অন্য মুছল্লীদের ভুল-ভ্রান্তি নিয়ে তাদের অনুপস্থিতিতে আলোচনা করেন। এক্ষণে এটা কি গীবত হবে?


নিজেদের ইছলাহের জন্য উদাহরণ স্বরূপ অন্য কারু কোন ত্রুটির প্রসঙ্গ উঠে এলে এবং সেখানে কোন মন্দ উদ্দেশ্য না থাকলে সেটা গীবত হবে না। যেভাবে হাদীছের সনদ সমূহের ভাল-মন্দ যাচাই করা হয়ে থাকে। কপট উদ্দেশ্য থাকলে সেটা গীবত হবে। কারণ শরী‘আতে … Continue reading

Posted in মুছল্লীদের ভুল-ভ্রান্তি নিয়ে তাদের অনুপস্থিতিতে আলোচনা করলে গীবত হবে কি? | Tagged