Tag Archives: গোনাহও

পাপের কারণে কেউ কি তার রিযিক থেকে বঞ্চিত হবে?


‘পাপের কারণে বান্দা তার রিযিক থেকে বঞ্চিত হয়’ মর্মে বর্ণিত হাদীছটি যঈফ (যঈফুত তারগীব হা/১৭৭৩; যঈফুল জামে‘ হা/৩০০৬)। তবে পাপের কারণে রিযিকে বরকত কমে যেতে পারে (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হা/৪৯১৮; মিরক্বাত)। উল্লেখ্য যে, পাপ মানুষকে রিযিক থেকে বঞ্চিত করে না। কারণ মানুষের … Continue reading

Posted in পাপের কারণে কেউ কি তার রিযিক থেকে বঞ্চিত হবে? | Tagged , | Leave a comment

জনৈক বক্তা বলেন, কোন ব্যক্তি যদি গোনাহ করে, তাহ’লে গোনাহ লেখক ফেরেশতা ছয় ঘন্টা অপেক্ষা করে। এর মধ্যে যদি সে তওবা করে এবং ক্ষমা প্রার্থনা করে তাহ’লে উক্ত গোনাহ লেখা হয় না। আর তওবা না করলে একটি গোনাহ লেখা হয়। উক্ত বক্তব্যের সত্যতা জানতে চাই।


উক্ত মর্মে বর্ণিত হাদীছটি ‘হাসান’ (ত্বাবারাণী কাবীর হা/৭৭৬৫; ছহীহাহ হা/১২০৯)। তবে অন্য একটি হাদীছে সাত ঘন্টার কথা রয়েছে যা ‘মউযূ’ বা জাল (যঈফাহ হা/২২৩৭)। এতদ্ব্যতীত রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, আল্লাহ তা‘আলা (ফেরেশতাদেরকে) বলেন, ‘আমার বান্দা কোন পাপ কর্মের কথা ভাবলেই তা লিখবে না, … Continue reading

Posted in গোনাহ করলে ফেরেশতা লেখার জন্য ছয় ঘন্টা অপেক্ষা করে কি? | Tagged | Leave a comment

আমি হদযোগ্য বড় গুনাহ করে ফেলেছি। এক্ষণে আমার জন্য করণীয় কি? কুরআনী ঘোষণা অনুযায়ী কি আমার জন্য পুত-পবিত্র নারীকে বিবাহ করা হারাম?


এজন্য প্রথমে অনুতপ্ত হয়ে পুনরায় উক্ত পাপ না করার দৃঢ় প্রত্যয়ে তওবা করতে হবে  (ইবনু মাজাহ হা/৪২৫০; মিশকাত হা/২৩৬৩)। রাসূল (ছাঃ) বলেন, তোমরা হদযোগ্য পাপ থেকে দূরে থাক। যে ব্যক্তি এর শিকার হবে সে যেন তা গোপন রাখে এবং আল্লাহর নিকট … Continue reading

Posted in হদযোগ্য গোনাহ করলে পুত-পবিত্র নারীকে বিবাহ করা হারাম কি?, হদযোগ্য বড় গুনাহ করে ফেললে করণীয় কি? | Tagged , | Leave a comment

কোন ব্যক্তি যেনায় লিপ্ত হ’লে তার ৪০ দিনের ইবাদত কবুল হয় না মর্মে বর্ণিত হাদীছের কোন সত্যতা আছে কি?


উক্ত মর্মে কোন দলীল নেই। বরং যেনাকারী বিবাহিত হ’লে রজম করতে হবে এবং অবিবাহিত হ’লে একশ’টি বেত্রাঘাত করতে হবে। আল্লাহ বলেন, ‘ব্যভিচারী নারী ও পুরুষের প্রত্যেককে তোমরা একশ’ বেত্রাঘাত কর’ (নূর ২৪/০২)। রাসূল (ছাঃ) বলেন, অবিবাহিত নারী-পুরুষ ব্যভিচার করলে একশ’ বেত্রাঘাত … Continue reading

Posted in যেনায় লিপ্ত হ’লে ৪০ দিনের ইবাদত কবুল হয় না কি? | Tagged , | Leave a comment

মহান আল্লাহ বিচারের মাঠে বান্দাদের সব পাপ ক্ষমা করবেন যদি শিরক না থাকে। তাহ’লে কি তিনি বান্দার সাথে সম্পর্কিত গোনাহও মাফ করবেন?


শিরকের গুনাহ আল্লাহর সাথে সংশ্লিষ্ট। অতএব ব্যক্তি অনুতপ্ত হয়ে তওবা করলে আল্লাহ তাকে ক্ষমা করে দিতে পারেন। কিন্তু বান্দার হক বান্দার সাথে সংশ্লিষ্ট, যা বান্দা ক্ষমা না করলে আল্লাহ ক্ষমা করবেন না। তার নিজস্ব তওবা এক্ষেত্রে কোন কাজে আসবে না (বিস্তারিত … Continue reading

Posted in আল্লাহ বান্দার সাথে সম্পর্কিত গোনাহও মাফ করবেন কি? | Tagged , | Leave a comment