Tag Archives: দো‘আ

আয়াতুল কুরসী পাঠ করে বুকে হাত বুলানো যাবে কি?


এ মর্মে কোন দলীল নেই। বদরুদ্দীন আয়নী হানাফী ইমাম বুখারী বর্ণিত একটি হাদীছ (বুখারী, হা/৫৭৪৭)-এর উপর কিয়াস করে যেকোন দো‘আ পাঠ করে শরীরে হাত বুলানোকে জায়েয বলেছেন (উমদাতুল ক্বারী শরহ বুখারী ২১/২৭০), যা গ্রহণযোগ্য নয়। বরং এক্ষেত্রে শরী‘আত নির্দেশিত আমল করাই যথেষ্ট … Continue reading

Posted in আয়াতুল কুরসী পাঠ করে বুকে হাত বুলানো যাবে কি? | Tagged

আমাদের এখানে মাযহাবী মসজিদে জুম‘আর খুৎবায় নির্দিষ্ট কয়েকজন ছাহাবীর জন্য দো‘আ করা হয়। এটি কি সঠিক? এছাড়া এ নিয়ম কবে থেকে শুরু হয়েছে?


এতে দোষের কিছু নেই। আবু মূসা আশ‘আরী সর্বপ্রথম বছরার জামে‘ মসজিদে ওমর (রাঃ)-এর প্রশংসা করে খুৎবা প্রদান করলে যাববাহ বিন মিহছান প্রতিবাদ করে বলেন, আপনি কেবল ওমরের জন্য দো‘আ করলেন অথচ তাঁর সাথীর জন্য করলেন না। এক সময় ওমর (রাঃ) … Continue reading

Posted in দো‘আ নির্দিষ্ট কয়েকজন ছাহাবীর জন্য করা যাবে কি? | Tagged

রাসূল (ছাঃ) থেকে প্রমাণিত না হ’লেও সম্মানিত ইমামগণ থেকে বর্ণিত অনেক দো‘আ পাওয়া যায়। যেমন আল্লাহু আকবার কাবীরা…. আছীলা। এক্ষণে এসব দো‘আ পাঠ উত্তম বা সুন্নাত বলা যাবে কি?


প্রশ্নে বর্ণিত দো‘আটি জনৈক ছাহাবী পাঠ করলে রাসূল (ছাঃ) তার ফযীলত বর্ণনা করে বলেন, আমি বিস্মিত হ’লাম যে, তার জন্য আকাশের দরজাসমূহ খুলে দেওয়া হ’ল (মুসলিম হা/৬০১; মিশকাত হা/৮১৭)। এটি প্রমাণ করে যে, দো‘আটি রাসূল (ছাঃ) কর্তৃক অনুমোদিত। তবে দো‘আটি ইমাম শাফেঈ … Continue reading

Posted in রাসূল (ছাঃ) থেকে প্রমাণিত না হয়েও যেসব দো’আ পাঠ করা হয় তা কি সুন্নাত? | Tagged ,

‘আল্লাহুম্মা ছল্লে ‘আলা মুহাম্মাদ…’ মর্মে বর্ণিত দো‘আটি জুম‘আর দিন পাঠ করায় প্রভূত নেকী হয় কি? বিশেষতঃ এদিন আছরের পর ৮০ বার পাঠ করলে ৮০ বছরের গোনাহ ঝরে যায় এবং ৮০ বছর ইবাদতের নেকী লিপিবদ্ধ হয়। একথার কোন সত্যতা আছে কি?


উক্ত মর্মে বর্ণিত হাদীছগুলির কোনটি জাল কোনটি যঈফ (ইবনু হাজার, নাতাইজুল আফকার ৫/৫৬; ইবনুল জাওযী, আল-আহাদীছুল ওয়াহিয়াহ হা/৭৯৬; সিলসিলা যঈফাহ হা/২১৫, ৩৮০৪)।

Posted in আল্লাহুম্মা ছল্লে ‘আলা মুহাম্মাদ...’ দো‘আটির ফযিলাত কি? | Tagged

তারাবীহ ছালাতে প্রতি দুই রাক‘আত পরপর ছানা পড়তে হবে কি?


ফরয ছালাত হোক অথবা নফল ছালাত হোক প্রত্যেক ছালাতের শুরুতে দো‘আয়ে ইস্তেফতাহ বা ছানা পাঠ করা সুনণাত। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) যখনই ছালাত আরম্ভ করতেন, তখনই তাকবীরে তাহরীমার পর দো‘আয়ে ইস্তেফতাহ পড়তেন (বুখারী হা/৭৪৪, মিশকাত হা/৮১২-১৩)। যেহেতু তারাবীহর প্রত্যেক দুই রাক‘আত পৃথক পৃথক … Continue reading

Posted in ছানা প্রতি দুই রাক‘আত পরপর পড়তে হবে কি? | Tagged

কাউকে দান করার পর তার নিকটে দো‘আ চাওয়া যাবে কি?


কাউকে কোন কিছু দান করার পর দো‘আ চাওয়া অনুচিৎ। কেননা এটি দানের বিনিময়ে প্রতিদান চাওয়ার মত হয়ে যায়। অথচ রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘ক্বিয়ামতের দিন যে সাত শ্রেণীর লোক আল্লাহর ছায়ার নিচে আশ্রয় পাবে, তাদের অন্যতম হ’ল, যে ব্যক্তি ডান হাতে … Continue reading

Posted in দান করার পর তার নিকটে দো‘আ চাওয়া যাবে কি? | Tagged ,

ঘরের বিভিন্ন স্থানে কুরআনের আয়াত, দো‘আ, আয়াতুল কুরসী ইত্যাদির ক্যালিগ্রাফী টানিয়ে রাখা যাবে কি?


যাবে না। কারণ (১) অধিকাংশ ক্ষেত্রে সৌন্দর্যবর্ধনের উদ্দেশ্যে কুরআনের আয়াত, দো‘আ ইত্যাদি দ্বারা বিভিন্ন রঙের ডিজাইনে নকশা করা হয়। অথচ কুরআন নাযিল হয়েছে মানুষকে হেদায়াতের জন্য, সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য নয়। অতএব এরূপ কাজ কুরআনকে তাচ্ছিল্য করার শামিল। (২) কেউ ঝুলিয়ে রাখে … Continue reading

Posted in ঘরের বিভিন্ন স্থানে কুরআনের আয়াত আয়াতুল কুরসী দো’আর ক্যালিগ্রাফী টানিয়ে র | Tagged , , , ,

ফরয ও সুন্নাত ছালাতের জন্য পৃথক পৃথক ছানা আছে কি? ফরয ছালাতের ছানা সুন্নাতে পাঠ করা যাবে কি?


ফরয ও সুন্নাত ছালাতের জন্য পৃথক কোন ছানা বর্ণিত হয়নি। অতএব হাদীছে বর্ণিত যেকোন ছানা  ফরয ও সুন্নাত উভয় ছালাতে পাঠ করা যাবে (মিশকাত হা/৮১২-১৫, ৮২০; ফাতাওয়া লাজনা দায়েমা প্রশ্নোত্তর নং ১৮৫৯১)।

Posted in ফরয ও সুন্নাত ছালাতের জন্য পৃথক পৃথক ছানা আছে কি? | Tagged ,

বিবাহের বৈঠকে হাত তুলে সম্মিলিতভাবে দো‘আ করা যাবে কি?


বিবাহ শেষে বা ছালাত শেষে হাত তুলে সম্মিলিতভাবে দো‘আ করার রীতি রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) ও ছাহাবায়ে কেরাম থেকে প্রমাণিত নয়। কেবলমাত্র  ‘ইস্তিসক্বা’ অর্থাৎ বৃষ্টি প্রার্থনার ছালাতে এবং ‘কুনূতে নাযেলাহ’ ও ‘কুনূতে বিতরে’ ইমাম ও মুক্তাদী সম্মিলিতভাবে দু’হাত তুলে দো‘আ করতে পারেন। … Continue reading

Posted in বিবাহের বৈঠকে হাত তুলে সম্মিলিতভাবে দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged , ,

ফরয ছালাতের পর পঠিতব্য দো‘আসমূহ সুন্নাত ছালাতের পর বা যেকোন সময় পাঠ করা যাবে কি?


পড়া যাবে। হাদীছে সকল ছালাতের জন্য আমভাবে প্রথমে আল্লাহু আকবর একবার সরবে, অতঃপর তিনবার ‘আসতাগফিরুল্লা–হ’ এবং একবার ‘আল্লা–হুম্মা আনতাস সালা–মু ওয়া মিনকাস সালা–মু তাবা–রাকতা ইয়া–যাল জালা–লি ওয়াল ইকরা–ম’ পাঠের ব্যাপারে বর্ণিত হয়েছে (বুখারী হা/৮৪২; মুসলিম হা/৫৮৩, ৫৯১, ৫৯২; মিশকাত হা/৯৫৯–৬১)। সুতরাং এটি সকল ছালাতের জন্য প্রযোজ্য। আর … Continue reading

Posted in ফরয ছালাতের পর পঠিতব্য দো‘আসমূহ যেকোন সময় পাঠ করা যাবে কি? | Tagged

বিদায়কালে কাউকে ‘তুমি তোমার প্রার্থনায় আমাকে শরীক করতে ভুলে যেয়ো না’ বলা যাবে কি?


উক্ত মর্মে বর্ণিত হাদীছটি যঈফ (আহমাদ হা/১৯৫; তিরমিযী হা/৬৫৬২; মিশকাত হা/২২৪৮; যঈফুল জামে‘ হা/৬২৭৮)। তবে সাধারণভাবে মুমিনগণ একে অপরের নিকটে দো‘আ চাইবে। যেমন ইউসুফ (আঃ)-এর ভাইয়েরা পিতা ইয়াকূব (আঃ)-এর নিকটে ক্ষমা চেয়ে বলেছিলেন, ‘আপনি আমাদের পাপের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করুন (ইউসুফ … Continue reading

Posted in তুমি তোমার প্রার্থনায় আমাকে শরীক করতে ভুলে যেয়ো না’ বলা যাবে কি? | Tagged ,

ফজরের ফরয ছালাতের পর যিকির-আযকারের নেকী পেতে চাই। কিন্তু শহরের মসজিদগুলি ফজরের ছালাতের পরপরই বন্ধ করে দেওয়া হয়। এক্ষণে উক্ত ইবাদত করার উপায় কি? এছাড়া সুন্নাত ছালাতের ৩য় বা ৪র্থ রাক‘আতে সূরা মিলাতে হবে কি?


মসজিদ যতক্ষণ খোলা থাকে ততক্ষণ মসজিদে বসে যিকর-আযকার করবে। নইলে বাড়িতে এসে দু’রাক‘আত নফল ছালাত পড়ে মুছাল্লায় বসে যিকির-আযকার করবে। আর নফল ইবাদত বাড়ীতে করাই সুন্নাত (ইবনু মাজাহ হা/১৩৭৮)। চার রাক‘আত বিশিষ্ট ‘নফল ছালাতে’র শেষ দু’রাক‘আতে অন্য সূরা মিলাবেন’ (মুসলিম হা/৩৯৪)।

Posted in মসজিদ বন্ধ করে দিলে যিকর-আযকার করবো কিভাবে? | Tagged ,

বহুল প্রচারিত একটি ইসলামী পত্রিকার প্রশ্নোত্তর কলামে বলা হয়েছে যে, কবরের সামনে দাঁড়িয়ে সূরা ইয়াসীন ও ফাতেহাসহ অন্যান্য সূরা পাঠ করা যাবে। এতে কবরের আযাব মাফ হবে এবং মৃত ব্যক্তি উক্ত তেলাওয়াতের নেকী পাবে। এ বক্তব্যের সত্যতা জানতে চাই।


উক্ত বক্তব্য সঠিক নয়। এ মর্মে বর্ণিত হাদীছসমূহ যঈফ (সিলসিলা যঈফাহ হা/১২৪৬, ৪১৪০)। সেখানে কুরআন তেলাওয়াতের নেকী মৃত ব্যক্তি পাবেন না। তিরমিযীর ভাষ্যকার আব্দুর রহমান মুবারকপুরী (রহঃ) বলেন, ইবাদতে বদনী, যেমন কুরআন তেলাওয়াত, ছালাত, ছিয়াম ইত্যাদির ছওয়াব মাইয়েত পাবেন মর্মে কোন … Continue reading

Posted in কবরের সামনে দাঁড়িয়ে সূরা ইয়াসীন ও ফাতেহাসহ অন্যান্য সূরা পাঠ করা যাবে কী? | Tagged ,

ছালাতের দুই সালামের মাঝে কোন দো‘আ পাঠ করতে হয় কি?


উক্ত স্থানে পঠিতব্য কোন দো‘আ হাদীছে পাওয়া যায় না। সুতরাং কিছু পাঠ করা যাবে না।

Posted in ছালাতের দুই সালামের মাঝে কোন দো‘আ পাঠ করতে হয় কি? | Tagged

রুকূতে তিনবারের কম বা বেশী তাসবীহ পাঠ করা যাবে কি?


সুবহা-না রবিবয়াল ‘আযীম ও সুবহা-না রবিবয়াল আ‘লা কম পক্ষে তিনবার বলবে (আবুদাঊদ হা/৮৭১, ৮৮৫; ইবনু মাজাহ হা/৮৮৮)। বেশী বলার নির্ধারিত সংখ্যা নেই। কারণ রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) কখনো কখনো দীর্ঘ সময় রুকূ ও সিজদাতে থাকতেন এবং দো‘আ সমূহ পাঠ করতেন (আবুদাঊদ হা/৮৭৪)। উল্লেখ্য, সর্বাধিক … Continue reading

Posted in রুকূতে তিনবারের কম বা বেশী তাসবীহ পাঠ করা যাবে কি? | Tagged

ফরয ছালাত শেষে দো‘আসমূহ সরবে না নীরবে পড়তে হবে?


সালাম ফিরানোর পরে একবার সরবে ‘আল্লাহু আকবার’ এবং তিনবার ‘আস্তাগফিরুল্লাহ’ বলবে (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/৯৫৯, ৯৬১)। অতঃপর অন্যান্য দো‘আসমূহ নীরবে পাঠ করবে। আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা তোমাদের প্রভুকে ডাক, বিনীতভাবে ও চুপে চুপে’ (আ‘রাফ ৭/৫৫)। তিনি বলেন, তুমি তোমার ছালাত উচ্চৈঃস্বরে আদায় করো … Continue reading

Posted in ফরয ছালাত শেষে দো‘আসমূহ সরবে না নীরবে পড়তে হবে? | Tagged ,

আমাদের বাসায় চল্লিশটি ক্বাফযুক্ত দো‘আ আছে। যা পড়লে নাকি অনেক নেকী হয়। এর কোন সত্যতা আছে কি?


বিদ‘আতীরা এরূপ ক্বাফ যুক্ত কিছু আয়াতকে একসাথে করে বিভিন্ন ফযীলত বর্ণনা করে দো‘আ বানিয়ে  থাকে, যার কোন অস্তিত্ব ইসলামী শরী‘আতে নেই। কুরআন ও হাদীছে বর্ণিত দো‘আই কেবল আমলযোগ্য দো‘আ হিসাবে গৃহীত হবে।

Posted in ক্বাফযুক্ত দো‘আ পড়লে অনেক নেকী হয় কি? | Tagged

ছালাতরত অবস্থায় সালাম ফিরানোর পূর্বে ঋণমুক্তি ও পিতা-মাতার জন্য দো‘আ করা যাবে কি?


সালাম ফিরানোর পূর্বে ঋণমুক্তির দো‘আ, পিতা-মাতার জন্য দো‘আ সহ যে কোন দো‘আ পাঠ করা যাবে। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘আত্তাহিইয়াতু’ পড়ার পর মুছল্লী তার ইচ্ছামত দো‘আ পড়বে (বুখারী, মুসলিম, মিশকাত হা/৯০৯)। ইবনু হাজার বলেন, এ হাদীছ দ্বারা প্রমাণিত হয় যে, মুছল্লী তাশাহহুদের … Continue reading

Posted in ছালাতরত অবস্থায় সালাম ফিরানোর পূর্বে দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged

ইমাম গাযালী (রহঃ) রচিত ‘কীমিয়ায়ে সা‘আদাত’ বইতে এসেছে, রাসূল (ছাঃ)-এর নিকটে জনৈক ব্যক্তি অভাবগ্রস্ত হওয়ার অভিযোগ নিয়ে আসলে তিনি তাকে সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহী… দো‘আটি পাঠ করতে বলেন। ফলে সে ধনী হয়ে যায়। হাদীছটি কি ছহীহ?


উক্ত মর্মে বর্ণিত হাদীছটি যঈফ (মুসনাদুল ফিরদাউস হা/৩৭৩১; লিসানুল মীযান হা/১৭০০, ইবনু হাজার বলেন, এটি একাধিক সনদে বর্ণিত হলেও তার সবই যঈফ)। তবে অভাব বা ঋণমুক্তির জন্য অনেক বিশুদ্ধ দো‘আ হাদীছে বর্ণিত হয়েছে। যেমন (১) ‘আল্লাহুম্মাগফিরলী যানবী ওয়া ওয়াসসি‘লী ফী দারী … Continue reading

Posted in দো‘আটি পাঠ করলে গরিব থাকে ধনী হয়ে যায় কি? | Tagged

দুই সিজদার মাঝে শরী‘আত নির্দেশিত কোন দো‘আ আছে কি? এছাড়া এসময় যেকোন মাসনুন দো‘আ পাঠ করা যাবে কি?


অবশ্যই দো‘আ রয়েছে। ইবনু আববাস (রাঃ) বলেন, রাসূল (ছাঃ) দুই সিজদার মাঝে বলতেন,اللَّهُمَّ اغْفِرْ لِىْ وَارْحَمْنِىْ وَاجْبُرْنِىْ وَاهْدِنِىْ وَعَافِنِيْ وَارْزُقْنِىْ (আল্লাহুম্মাগফিরলী ওয়ারহামনী ওয়াজবুরনী ওয়াহদিনী ওয়া ‘আফিনী ওয়ারযুক্বনী) অর্থ : ‘হে আল্লাহ! আপনি আমাকে ক্ষমা করুন, আমার উপরে রহম করুন, আমার … Continue reading

Posted in দুই সিজদার মাঝে শরী‘আত নির্দেশিত কোন দো‘আ আছে কি? | Tagged

আমাদের ইমাম ছাহেব প্রতিদিন ফজর ছালাতের শেষ রাক‘আতে হাত তুলে দো‘আ করেন। এমনকি একদিন দো‘আ করতে ভুলে গেলে সহো সিজদাও দিয়েছেন। এভাবে দোআ কুনূত নিয়মিত পড়ার কোন বিধান শরী‘আতে আছে কি? প্রতিদিন এরূপ করতে যেসব মুছল্লী ইচ্ছুক নয় তাদের জন্য করণীয় কি?


এভাবে নিয়মিতভাবে কুনূতে নাযেলাহ পাঠ করা জায়েয নয় (তিরমিযী হা/৪০২; মুছান্নাফ ইবনু আবী শায়বাহ হা/৫৪৫৫-৫৭; মিশকাত হা/১২৯১-৯২)। আর এর জন্য সহো সিজদা দেওয়ারও কোন প্রয়োজন নেই। ইবনুল ক্বাইয়িম (রহঃ) বলেন, রাসূল (ছাঃ) বিপদাপদের ক্ষেত্রে সাময়িকভাবে কুনূতে নাযেলাহ পাঠ করতেন। পরে তা … Continue reading

Posted in ফজর ছালাতের শেষ রাক‘আতে প্রতিদিন দোআ কুনূত পড়া যাবে কি? | Tagged ,

ইসমে আ‘যম সহ দো‘আ করার পদ্ধতি কি?


ছালাতের শেষ বৈঠকে বা সালাম ফিরানোর পর ‘ইসমে আ‘যম’ সহ নিম্নোক্ত দো‘আ পাঠ করতে হয়। ‘আল্লা-হুম্মা ইন্নী আসআলুকা বিআন্নাকা আনতাল্লা-হুল আহাদুছ ছামাদুল্লাযী লাম ইয়ালিদ ওয়া লাম ইউলাদ ওয়া লাম ইয়াকুল লাহূ কুফুওয়ান আহাদ’ (হে আল্লাহ! আমি তোমার নিকটে প্রার্থনা করছি। কেননা তুমি … Continue reading

Posted in দো'আ সকাল সন্ধা কত বার পাঠ করতে হবে?, দো‘আ করার পদ্ধতি কি?, দো‘আ পাঠ করার সময় আঊযুবিল্লাহ ও বিসমিল্লাহ পাঠ করতে হবে কি? | Tagged

‘সাইয়েদ’ আল্লাহর গুণবাচক নাম সমূহের অন্তর্ভুক্ত কি? যদি হয় তবে ইয়া সাইয়েদী বলে দো‘আ করা যাবে কি?


সরাসরি এটি আল্লাহর গুণবাচক নাম হিসাবে হাদীছে না আসলেও রাসূল (ছাঃ) ও তাঁর ছাহাবাগণ এ নামে আল্লাহকে সম্বোধন করেছেন। আব্দুর রহমান ইবনু শিখখীর (রাঃ) বলেন, আমরা বনু ‘আমের প্রতিনিধি দলের সাথে রাসূল (ছাঃ)-এর নিকট গিয়ে বললাম, আপনি আমাদের সাইয়েদ! তখন … Continue reading

Posted in সাইয়েদ’ আল্লাহর গুণবাচক নাম সমূহের অন্তর্ভুক্ত কি?, সাইয়েদী বলে দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged

মুলতাযাম কি? এ স্থানে পঠিতব্য কোন দো‘আ বা কোন আমল আছে কি?


‘মুলতাযাম’ অর্থ জড়িয়ে ধরার স্থান। আর এটি হ’ল কা‘বার দরজা ও হাজারে আসওয়াদের মধ্যবর্তী স্থান। এ স্থানের জন্য নির্দিষ্ট কোন দো‘আ বা আমল রাসূল (ছাঃ) থেকে বর্ণিত হয়নি। তবে ইবনু আববাস (রাঃ) সহ একাধিক ছাহাবী এখানে নির্দিষ্ট ভঙ্গিতে দো‘আ করেছেন। … Continue reading

Posted in মুলতাযাম কি? এ স্থানে পঠিতব্য কোন দো‘আ বা কোন আমল আছে কি? | Tagged

বজ্রপাতের সময় কোন দো‘আ আছে কি?


হ্যাঁ। এ মর্মে দো‘আ আছে। আব্দুল্লাহ ইবনু যুবায়ের (রাঃ) যখন বজ্রের আওয়াজ শুনতেন, তখন কথা-বার্তা ছেড়ে দিয়ে নিম্নের দো‘আটি পাঠ করতেন। (‘সুবহা-নাল্লাযী ইয়ুসাবিবহুর রা‘দু বিহামদিহী ওয়াল মালা-ইকাতু মিন খীফাতিহ’) ‘মহা পবিত্র সেই সত্তা যাঁর গুণগান করে বজ্র ও ফেরেশতামন্ডলী সভয়ে’ (রা‘দ ১৩/১৩)। … Continue reading

Posted in বজ্রপাতের সময় কোন দো‘আ আছে কি? | Tagged

আযান ও ইক্বামতের মধ্যবর্তী সময়ে দো‘আ করার বিশেষ কোন ফযীলত আছে কি?


আছে। রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, আযান ও ইক্বামতের মধ্যবর্তী সময়ের দো‘আ ফেরত দেয়া হয় না। অতএব তোমরা এসময় দো‘আ কর (আহমাদ হা/১২৬০৬; তিরমিযী হা/২১২; মিশকাত হা/৬৭১)। তিনি বলেন, যখন ছালাতের আযান দেওয়া হয়, তখন আকাশের দরজাসমূহ খুলে দেওয়া হয় এবং দো‘আ কবূল করা … Continue reading

Posted in আযান ও ইক্বামতের মধ্যবর্তী সময়ে দো‘আ করার বিশেষ কোন ফযীলত আছে কি? | Tagged ,

চাঁদ দেখার দো‘আটি কি কেবল ঈদের চাঁদের সাথে নির্দিষ্ট না ১২ মাস নতুন চাঁদ দেখলে উক্ত দো‘আটি পাঠ করা যাবে?


দো‘আটি কেবল ঈদে নয় বরং প্রতি মাসে নতুন চাঁদ দেখে পাঠ করতে হবে। দো‘আটি হ’ল- আল্লা-হু আকবর, আল্লা-হুম্মা আহিল্লাহূ ‘আলাইনা বিল আমনি ওয়াল ঈমা-নি, ওয়াস্সালা-মাতি ওয়াল ইসলা-মি, ওয়াততাওফীক্বি লিমা তুহিববু ওয়া তারযা; রববী ওয়া রববুকাল্লা-হ। অর্থ : আল্লাহ সবার চেয়ে বড়। হে আল্লাহ! আপনি আমাদের উপরে চাঁদকে উদিত করুন … Continue reading

Posted in চাঁদ দেখার দো‘আটি কি কেবল ঈদের সময় পাঠ করা যাবে? | Tagged ,

বিতর ছালাতে দো‘আ কুনূত কখন, কিভাবে পড়তে হয়?


বিতর ছালাতে দো‘আয়ে কুনূত রুকূর পূর্বে ও পরে দু’ভাবেই পড়া যায় (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/১২৮৯; ইবনু মাজাহ হা/১১৮৩-৮৪; মিশকাত হা/১২৯৪; মির‘আত ৪/২৮৬-৮৭; ফিক্বহুস সুন্নাহ ১/১৪৭ পৃঃ)। আবু হুরায়রা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) যখন কারো বিরুদ্ধে বা কারো পক্ষে দো‘আ করতেন, তখন রুকূর পরে কুনূত পড়তেন (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত … Continue reading

Posted in বিতর ছালাতে দো‘আ কুনূত কখন, কিভাবে পড়তে হয়? | Tagged ,

আযানের পর পঠিতব্য ছহীহ এবং জাল-যঈফ দো‘আ সমূহ কি কি?


বিশুদ্ধ নিয়ম হ’ল, আযানের জওয়াব দান শেষে প্রথমে দরূদ পড়বে (মুসলিম, মিশকাত হা/৬৫৭)। অতঃপর আযানের দো‘আ পড়বে ‘আল্লা-হুম্মা রববা হা-যিহিদ দা‘ওয়াতিত তা-ম্মাহ, ওয়াছ ছলা-তিল ক্বা-য়িমাহ, আ-তি মুহাম্মাদানিল ওয়াসীলাতা ওয়াল ফাযীলাহ, ওয়াব‘আছ্হু মাক্বা-মাম মাহমূদানিল্লাযী ওয়া‘আদ্তাহ’। রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) এরশাদ করেন ‘যে ব্যক্তি … Continue reading

Posted in আযানের পর পঠিতব্য ছহীহ এবং জাল-যঈফ দো‘আ সমূহ কি কি? | Tagged ,

রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর অসীলায় দো‘আ করা যাবে কি? এ ব্যাপারে কোন দলীল আছে কি?


মৃত্যুর পরে রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর অসীলায় দো‘আ করা বা কোন বিপদে তাঁর নিকটে সাহায্য প্রার্থনা করা বড় শিরকের অন্তর্ভুক্ত। কারণ মৃত্যুর পরে কেউ কারু কোন উপকার বা ক্ষতি করতে পারে না। আল্লাহ বলেন, তাদের সামনে পর্দা থাকবে পুনরুত্থান দিবস পর্যন্ত’ (মুমিনূন … Continue reading

Posted in রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর অসীলায় দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged

লাশ দাফন করার পর একাকী হাত তুলে দো‘আ করা যাবে কি?


মৃতব্যক্তির দাফনের পর দাফন-কাফনের অংশ হিসাবে কবরস্থানে দাঁড়িয়ে সম্মিলিতভাবে বা একাকী হাত তুলে দো‘আ করার কোন বিধান শরী‘আতে নেই। এরূপ আমল বিদ‘আতের অন্তর্ভুক্ত। তবে দাফনের পরে মাইয়েতের ‘তাছবীত’ অর্থাৎ মুনকার নাকীর-এর প্রশ্নের জবাব দানের সময় যেন তিনি দৃঢ় থাকতে পারেন, … Continue reading

Posted in লাশ দাফন করার পর একাকী হাত তুলে দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged ,

আয়াতুল কুরসী ও সূরা নাস, ফালাক্ব দো‘আ হিসাবে পাঠ করার সময় আঊযুবিল্লাহ ও বিসমিল্লাহ পাঠ করতে হবে কি?


দো‘আ হিসাবে আবশ্যিক নয়। কেননা হাদীছে এরূপ অনেক কুরআনী দো‘আ আছে, যা পড়া হয় কিন্তু আঊযুবিল্লাহ পড়তে হয় না। যেমন তাওয়াফের সময় রুকনে ইয়ামানী ও রুকনে হাজারে আসওয়াদ-এর মধ্যবর্তী স্থানে রাসূল (ছাঃ) ‘রববানা আতিনা ফিদ্দুনিয়া হাসানাতাঁও’… (বাক্বারাহ ২০১) পাঠ করতেন। … Continue reading

Posted in দো‘আ পাঠ করার সময় আঊযুবিল্লাহ ও বিসমিল্লাহ পাঠ করতে হবে কি? | Tagged

আমাদের মসজিদে ফজর ও মাগরিবের ছালাতের পরপরই নিয়মিতভাবে একজনের নেতৃত্বে একাধিক দো‘আ সমস্বরে পাঠ করানো হয়। ফলে মাসবূকদের মনোযোগ ব্যাহত হয়। এভাবে সমস্বরে নিয়মিত দো‘আ পাঠ করা শরী‘আত সম্মত কি?


মুক্তাদীদের শিক্ষাদানের জন্য এরূপ করা যেতে পারে। তবে তা অধিকাংশ মাসবূকের ছালাত শেষে করতে হবে। এছাড়া বিশেষ কোন নেকী মনে করে নিয়মিতভাবে এরূপ করার কোন সুযোগ নেই। এতে কাজটি পরবর্তীতে বিদ‘আতে পরিণত হ’তে পারে।

Posted in ছালাতের পর সমস্বরে দো‘আ পাঠ করা শরী‘আত সম্মত কি? | Tagged

কারো হেদায়াত কামনার জন্য বিশেষ কোন দো‘আ আছে কি?


হেদায়াতের জন্য বিশেষ দো‘আর প্রমাণ আছে। যেমন রাসূল (ছাঃ) আবু হুরায়রা (রাঃ)-এর মুশরিক মাতার হেদায়াতের জন্য পাঠ করেছিলেন, اللَّهُمَّ اهْدِ أُمَّ أَبِيْ هُرَيْرَةَ অর্থাৎ ‘হে আল্লাহ! তুমি আবু হুরায়রার মাকে হেদায়াত দাও’ (মুসলিম হা/২৪৯১, মিশকাত হা/৫৮৯৫)। তিনি দাওস গোত্রের জন্য … Continue reading

Posted in হেদায়াত কামনার জন্য বিশেষ কোন দো‘আ আছে কি? | Tagged

পিতা সন্তানের কোন অপরাধ প্রকাশ্যে ক্ষমা করে দেওয়ার পরেও তার বিরুদ্ধে ‘আল্লাহ তুমি তাকে জাহান্নামে দাও এবং দুনিয়াতে ধ্বংস করে দাও’ বলে বদ দো‘আ করেন। এরূপ বদদো‘আ কবুল হবে কি?


সন্তানের বিরুদ্ধে বদদো‘আ করা জায়েয নয়। রাসূল (ছাঃ) এ ব্যাপারে নিষেধ করে বলেন, ‘তোমরা নিজেদের জন্য বদদো‘আ করো না, নিজ সন্তানদের বিরুদ্ধে বদদো‘আ করো না এবং নিজেদের অর্থ-সম্পদের ব্যাপারে বদদো‘আ করো না। যাতে তোমরা এমন এক সময়ে না পৌঁছে যাও, … Continue reading

Posted in সন্তানের বিরুদ্ধে বদদো‘আ করা জায়েয কি? | Tagged ,