Tag Archives: রাফ‘উল ইয়াদায়েন

বসে ছালাত আদায় করলে রাফঊল ইয়াদায়েন করতে হবে কি?


বসে ছালাত আদায় করলেও যথাস্থানে রাফঊল ইয়াদায়েন করতে হবে। কারণ দৈহিক অক্ষমতার কারণে যতটুকু অনুসরণ করা সম্ভব হয় না, ততটুকুর ব্যাপারে শরী‘আতে ছাড় রয়েছে, তার বেশী নয়। তবে কেউ কেউوَلاَ يَرْفَعُ يَدَيْهِ فِي شَيْءٍ مِنْ صَلاَتِهِ وَهُوَ قَاعِدٌ ‘তিনি ছালাতে … Continue reading

Posted in রাফঊল ইয়াদায়েন বসে ছালাত আদায় করলে করতে হবে কি? | Tagged

ইমামের সালাম ফিরানোর পর বাকী ছালাত আদায়ের জন্য দাঁড়িয়ে প্রথমে রাফউল ইয়াদায়েন করতে হবে কি?


হ্যাঁ। কেননা সে তাশাহহুদ থেকে দাঁড়িয়েছে। আর তাশাহহুদ থেকে দাঁড়িয়ে বাকী ছালাত আদায়ের ক্ষেত্রে প্রথমে রাফউল ইয়াদায়েন করাই শরী‘আতের নির্দেশনা (বুখারী হা/৭৩৯; ওছায়মীন, ইসলাম কিউএ ফতওয়া নং ২১৫০৬)।

Posted in ইমামের সালাম ফিরানোর পর দাঁড়িয়ে প্রথমে রাফউল ইয়াদায়েন করতে হবে কি? | Tagged ,

ছালাতে রাফঊল ইয়াদায়েন সহ ছহীহ হাদীছ ভিত্তিক আমলসমূহ করলে মসজিদের অনেক মুছল্লী গাল-মন্দ করে। এক্ষণে সাময়িকভাবে এগুলি করা থেকে বিরত থাকা যাবে কি?


কোন অবস্থাতেই সুন্নাত ছাড়া যাবে না। একারণেই রাসূল (ছাঃ) ভবিষদ্বাণী করেছেন, ‘তোমাদের পরে এমন একটা কঠিন সময় আসছে, যখন সুন্নাতকে দৃঢ়ভাবে ধারণকারী ব্যক্তি তোমাদের মধ্যকার পঞ্চাশ জন শহীদের সমান নেকী পাবে’ (ত্বাবারাণী কাবীর হা/১০২৪০; ছহীহুল জামে‘ হা/২২৩৪)। ছালাত ইসলামী শরী‘আতের সবচেয়ে … Continue reading

Posted in ছালাতে রাফঊল ইয়াদায়েন করলে মুছল্লী গাল-মন্দ করে এ জন্য বিরত থাকা যাবে কি? | Tagged ,

মাসবূক বাকী ছালাত আদায়ের জন্য দাঁড়িয়ে প্রথমে রাফঊল ইয়াদায়েন করে হাত বাঁধবে কি?


মাসবূক হৌক বা সাধারণ ছালাত আদায়কারী হৌক, তাশাহহুদ থেকে উঠে দাঁড়ালে প্রথমে রাফঊল ইয়াদায়েন করবে। কেননা রাসূল (ছাঃ) দ্বিতীয় রাক‘আত থেকে উঠে দাঁড়াবার সময় রাফ‘উল ইয়াদায়েন করতেন (বুখারী হা/৭৩৯, মিশকাত হা/৭৯৪; উছায়মীন.)।

Posted in ছালাত আদায়ের জন্য দাঁড়িয়ে প্রথমে রাফঊল ইয়াদায়েন করে হাত বাঁধবে কি? | Tagged ,

বিদ‘আতী ইমামের পিছনে ঈদায়নের ছালাত আদায়ের সময় ‘আমীন বলা’ ও ‘রাফউল ইয়াদায়নে’র ন্যায় অতিরিক্ত তাকবীর সমূহ একাকী আদায় করলে তাতে শরী‘আতে কোন বাধা আছে কি?


একাকী পৃথকভাবে তাকবীর দেওয়া যাবে না। কেননা হাদীছে বর্ণিত ইমামের অনুসরণ দ্বারা তার ছালাতের তাকবীরসমূহ অনুসরণের প্রতি ইঙ্গিত করা হয়েছে। একদা রাসূল (ছাঃ) ছালাতরত অবস্থায় ময়লা থাকার কারণে জুতা খুলে ফেললে ছাহাবায়ে কেরামও জুতা খুলে ফেলেন। পরবর্তীতে রাসূল (ছাঃ) তাদেরকে … Continue reading

Posted in বিদ‘আতী ইমামের পিছনে ছালাত আদায়ের সময় করণীয়।, বিদাতী ইমা‌মের পিছ‌নে নামাজ পড়া যা‌বে কী? | Tagged , , ,

আমি আক্বীদাগত ভাবে কুরআন এবং ছহীহ হাদীস অনুসারী। কিন্তু বিদাতী এলাকায় আমার বসবাস হওয়ায় বাধ্য হয়ে বিদাতী ইমামের পিছনে জামা‘আতে ছালাত আদায় করতে হয়। ঐ ইমাম রাফ‘উল ইয়াদায়েন, জোরে আমীন বলা সহ অনেক সুন্নাতই আমল করেন না। অথচ আমি সেগুলো পালন করি। এমতাবস্থায় ইমামের অনুসরণ করা হবে কি?


বিশুদ্ধ সুন্নাতের উপর আমল করেই ইমামের অনুসরণ করতে হবে। এতে ছালাতের কোন ক্ষতি হবে না। ছহীহ হাদীছে থাকা সত্ত্বেও যে সমস্ত আমল ইমাম ছেড়ে দিবেন মুক্তাদী হিসাবে সেগুলো আমল করা সম্ভব হ’লে তা পালন করতে হবে (বুখারী হা/৩৭৮, ৬৮৯; মুসলিম … Continue reading

Posted in বাতিল ফের্কার লোকদের পিছনে ছালাত আদায় করা যাবে কি?, বিদাতী ইমা‌মের পিছ‌নে নামাজ পড়া যা‌বে কী? | Tagged , ,

চার ইমামের মধ্যে কোন্ কোন্ ইমাম ছালাতে রাফ‘উল ইয়াদায়েন করতেন?


প্রসিদ্ধ চার ইমামের মধ্যে ইমাম আবু হানীফা ছাড়া বাকী তিন ইমাম ছালাতে রাফ‘উল ইয়াদায়েন করতেন। ইমাম আবু হানীফা (রহঃ) শুধু তাকবীরে তাহরীমার সময় রাফ‘উল ইয়াদাইন করতেন (ZzndvZzj AvnIqvhx 1g LÊ 548 c„t) (তুহফাতুল  আহওয়াযী প্রথম খন্ড ৫৪৮ পৃষ্টা )|

Posted in চার ইমামের মধ্যে কোন্ কোন্ ইমাম ছালাতে রাফ‘উল ইয়াদায়েন করতেন | Tagged | Leave a comment

মাদরাসা বোর্ডের বইয়ে লেখা হয়েছে, ইমাম আবু হানীফা (রহঃ) ইমাম আওযাঈর কাছে বর্ণনা করেছেন যে, রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) ছালাতে রাফউল ইয়াদায়েন করেননি। উক্ত হাদীছকে ইমাম আবু হানীফা (রহঃ) ছহীহ মনে করতেন। এর সত্যতা কি?


বিষয়টি একটি প্রসিদ্ধ ঘটনার দিকে ইঙ্গিত করে। কথিত আছে যে, মক্কায় ইমাম আওযাঈর সাথে ইমাম আবু হানীফা (রহঃ)-এর সাক্ষাত হয়। তখন আওযাঈ (রহঃ) তাঁকে বলেন, আপনারা রুকুতে যাওয়ার সময় ও রুকূ থেকে ওঠার সময় রাফ‘উল ইয়াদায়েন করেন না কেন? জবাবে … Continue reading

Posted in রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) ছালাতে রাফউল ইয়াদায়েন করেছেন কি? | Tagged | Leave a comment

প্রথম তাশাহহুদে জামা‘আতে শরীক হওয়ার পর ইমাম যখন ৩য় রাক‘আতের জন্য উঠে দাঁড়াবেন, তখন কি ইমামের সাথে রাফ‘উল ইয়াদায়েন করতে হবে? এরপর মাসবূক একাকী যখন স্বীয় ৩য় রাক‘আত শুরু করবে তখন কি পুনরায় রাফ‘উল ইয়াদায়েন করবে?


মাসবূক দুই স্থানেই রাফ‘উল ইয়াদায়েন করবে। প্রথমটি হবে ইমামের অনুসরণ, আর পরেরটি তার নিজ হিসাব অনুযায়ী ৩য় রাক‘আতের জন্য (বুখারী হা/৮৬৬, মুসলিম হা/৬০২)। মূলতঃ ছালাতের মধ্যে কয়বার রাফঊল ইয়াদায়েন করতে হবে তা ধর্তব্য নয়। বরং যে যে স্থানে করার নির্দেশ … Continue reading

Posted in রাফ‘উল ইয়াদায়েন মাসবূক কিভাবে করবে? | Tagged , | Leave a comment

রাফঊল ইয়াদায়েন মানসূখ হওয়ার কোন দলীল আছে কি?


রুকূতে যাওয়া ও রুকূ হ’তে ওঠার সময় ‘রাফ‘উল ইয়াদায়েন’ করা সম্পর্কে চার খলীফা সহ প্রায় ২৫ জন ছাহাবী থেকে বর্ণিত ছহীহ হাদীছ সমূহ রয়েছে। একটি হিসাব মতে ‘রাফ‘উল ইয়াদায়েন’-এর হাদীছের রাবী সংখ্যা ‘আশারায়ে মুবাশ্শারাহ’ সহ অন্যূন ৫০ জন ছাহাবী (ফাৎহুল … Continue reading

Posted in রাফঊল ইয়াদায়েন মানসূখ হওয়ার কোন দলীল আছে কি? | Tagged | Leave a comment

ছালাতে ক্বওমা, রুকূ, সিজদা ও তাশাহহুদের সময় দৃষ্টি কোন দিকে রাখতে হবে? আশে-পাশে বা আসমানের দিকে দৃষ্টি দিলে ছালাত ত্রুটিপূর্ণ হবে কি?


ছালাতের সময় সিজদার দিকে দৃষ্টি নিবদ্ধ রাখাই সুন্নাত (হাকেম হা/১৭৬১, আলবানী, ছিফাতু ছালা-তিন্নবী পৃঃ ৬৯)। তবে তাশাহহুদের সময় দৃষ্টি থাকবে ইশারার দিকে (আবুদাঊদ হা/৯৯০, মিশকাত হা/৯১২)। ইচ্ছাকৃতভাবে ও বিনা কারণে আশেপাশে দৃষ্টি দিলে ছালাত বাতিল হয়ে যাবে। রাসূল (ছাঃ) বলেন, … Continue reading

Posted in ছালাতে ক্বওমা রুকূ সিজদা ও তাশাহহুদের সময় দৃষ্টি কোন দিকে রাখতে হবে? | Tagged , , | Leave a comment

মাগরিবের ছালাতের ন্যায় তিন রাক‘আত বিশিষ্ট বিতর ছালাতের ৩য় রাক‘আতে দাঁড়ানোর সময় রাফ‘ঊল ইয়াদায়েন করতে হবে কি?


রাসূলুল্লাহ (ছাঃ) বলেন, ‘তোমরা মাগরিবের ছালাতের ন্যায় (মাঝখানে বৈঠক করে) বিতর আদায় করো না’ (দারাকুৎনী হা/১৬৩৪-৩৫, সনদ ছহীহ)। চার খলীফাসহ অধিকাংশ ছাহাবী, তাবেঈ ও মুজতাহিদ ইমামগণ এক রাক‘আত বিতরে অভ্যস্ত ছিলেন (মির‘আত ৪/২৫৯)। তিন রাক‘আত বিতর একটানা এক সালামে পড়াই … Continue reading

Posted in তিন রাক‘আত বিশিষ্ট বিতর ছালাতের ৩য় রাক‘আতে দাঁড়ানোর সময় রাফ‘ঊল ইয়াদায়েন কর | Tagged | Leave a comment