Tag Archives: সন্তান

মা আমার কাছে ঢাকায় থাকেন। ছোটবেলা থেকেই আমি মায়ের বৈষম্যমূলক আচরণের শিকার। আমার বিয়ের পর দ্বন্দ্ব আরো বেড়ে গেছে। তার কারণে আমার দাম্পত্য জীবনেও কিছু সমস্যা হয়। কিন্তু মা আমার বাসা ছাড়া কোথাও যেতে চান না। এই অবস্থায় আমার করণীয় কি?


মা সন্তানের জন্য অমূল্য নে‘মত। তাই তার পক্ষ থেকে কষ্ট পেলেও তা ছোট করে দেখতে হবে এবং ধৈর্য ধারণ করতে হবে। সাধ্যমত মাকে বুঝানোর চেষ্টা করতে হবে। কোন অবস্থায় তাকে পরিত্যাগ করা যাবে না। কারণ পিতা-মাতার সন্তুষ্টিতে আল্লাহর সন্তুষ্টি’ (বায়হাক্বী, শু‘আবুল … Continue reading

Posted in মা এর কারনে পরিবারে কোন সমস্যা হলে আমার করণীয় কি? | Tagged ,

সন্তানের সকল সৎকর্মের ছওয়াব পিতা-মাতা পাবেন কি?


সন্তানের সকল সৎকর্মের ছওয়াব পিতা-মাতা সমানভাবে পাবেন মর্মে সুস্পষ্ট কোন দলীল পাওয়া যায় না। বরং যে সকল সৎকর্ম পিতা-মাতার মাধ্যমে বা প্রচেষ্টায় সন্তান শিখেছে তার ছওয়াব পিতা-মাতা পাবেন (ইবনু তায়মিয়াহ, জামেঊল মাসাইল, ৪/২৬৬-২৭৫)। রাসূল (ছাঃ) বলেন, কেউ যদি কাউকে সুপথ প্রদর্শন … Continue reading

Posted in সন্তানের সকল সৎকর্মের ছওয়াব পিতা-মাতা পাবেন কি? | Tagged ,

শিশুদের প্রতি কি পিতা-মাতারও বদ নযর লাগে? কেউ কেউ পিতা-মাতাকেও অভিযুক্ত করে থাকে। এভাবে কারু নযর লাগলে পরিত্রাণ পাওয়ার উপায় কি?


সাধারণতঃ পিতা-মাতার বদ নযর লাগে না। কেননা বদ নযর মানুষের খারাপ ইচ্ছা থেকে হয়ে থাকে। আর পিতা-মাতা কখনো সন্তানের অকল্যাণ বা খারাপ কিছু চান না। সুতরাং পিতা-মাতাকে অভিযুক্ত করা অন্যায় হবে। তবে অনিচ্ছা সত্ত্বেও সৎ মানুষের ক্ষেত্রে অনেক সময় কাউকে … Continue reading

Posted in শিশুদের প্রতি কি পিতা-মাতারও বদ নযর লাগে? | Tagged ,

পিতা-মাতা যদি ব্যাপক প্রহার করে ও গালি-গালাজ করে তাহ’লে তা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ফৌজদারী আদালতে নালিশ করা যাবে কি? যাতে এধরনের নির্যাতন থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।


প্রথমত: পিতার জন্য সন্তানকে কোন অবস্থাতেই অতিরিক্ত শাসন বা মারপিট করা সমীচীন নয়। সন্তানকে শাসনের ক্ষেত্রেও ইসলামের বিধান রয়েছে। প্রথমে তাদের বুঝাতে হবে, এরপর শাস্তির ভয় দেখাতে হবে, তারপর ভৎর্সনা করতে হবে। এতেও সংশোধন না হ’লে মৃদুভাবে ৩-১০ বেত্রাঘাত করা … Continue reading

Posted in পিতা-মাতার গালি-গালাজ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আদালতে নালিশ করা যাবে কি? | Tagged , ,

মাতৃগর্ভে মৃত সন্তানের সুফারিশ পিতা-মাতা লাভ করবে কি? তারা পিতা-মাতার জন্য কোন উপকারে আসবে কি?


যে সন্তান মাতৃগর্ভে চার মাস বা ১২০ দিন অবস্থান করার পর গর্ভচ্যুত হবে বা মারা যাবে সে সন্তান পিতা-মাতার উপকারে আসবে ইনশাআল্লাহ (নববী, আল মাজমূ‘ ৫/২৮৭; হাশিয়াতু ইবনু আবেদীন ২/২২৮)। কারণ এ সময় তাকে জীবন, রিযিক ও বয়স দান করা হয় … Continue reading

Posted in মাতৃগর্ভে মৃত সন্তান পিতা-মাতার জন্য কোন উপকারে আসবে কি?, মাতৃগর্ভে মৃত সন্তানের সুফারিশ পিতা-মাতা লাভ করবে কি? | Tagged ,

এক মা তার ২ বছরের দুধের শিশুর খাদ্যের অবশিষ্টাংশ নিজে না খেয়ে অন্য কাউকে খেতে দেয়। জিজ্ঞেস করা হ’লে সে বলে যে শিশু দুধ না ছাড়া পর্যন্ত নাকি তার খাদ্যের অবশিষ্টাংশ মা খেতে পারবে না এবং এ ব্যাপারে নিষেধ আছে। এ কথা কি সঠিক?


এটি কুসংস্কার মাত্র। এ ব্যাপারে শরী‘আতে কোন নিষেধাজ্ঞা নেই।

Posted in মা দুধের শিশুর খাদ্যের অবশিষ্টাংশ নিজে খেতে পারবেনা কি? | Tagged ,

আমাদের মসজিদের ইমাম এক মেয়েকে তার পিতার অনুমতি ছাড়াই তার বোনের বাড়ীতে কিছু দিন রেখে বিয়ে করে। তার বিয়ে কি সিদ্ধ হয়েছে? না হ’লে করণীয় কি? তার সন্তানরা কি হালাল সন্তান হবে নাকি জারজ হবে?


উক্ত বিবাহ সঠিক হয়নি।  কারণ পিতার অসম্মতিতে মেয়ের বিবাহ বৈধ নয়। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘কোন মহিলা যদি অলীর বিনা অনুমতিতে বিবাহ করে তাহ’লে তার ঐ বিবাহ বাতিল, বাতিল, বাতিল’ (আহমাদ, তিরমিযী, আবুদাউদ, ইবনে মাজাহ, সনদ ছহীহ, মিশকাত হা/৩১৩১ ও ৩১৩০ ‘বিবাহে … Continue reading

Posted in অভিভাবক ছাড়া বিবাহ করলে বিবাহ সম্পন্ন হবে কি? | Tagged , ,

একাধিক ছেলে ও মেয়েদের মাঝে মেয়েদেরকে কি বেশী ভালবাসতে হবে, না-কি সমান ভালবাসতে হবে? আর জীবিত অবস্থায় সন্তানদের সম্পদ দিলে কি সমানভাবে দিতে হবে?


সন্তানদের ভালোবাসার ক্ষেত্রে ছেলে ও মেয়ের মাঝে সাধ্যমত সমতা রক্ষা করতে হবে। সম্ভবত প্রশ্নটি এসেছে নিম্নোক্ত হাদীছটি অনুসারে- একদিন রাসূল (ছাঃ)-এর পাশে একজন ছাহাবী বসে ছিলেন। তার পুত্র সন্তানটি আগমন করলে সে চুমু দিয়ে নিজের কোলে বাসালো। একটু পরে তার … Continue reading

Posted in ছেলে ও মেয়েদের মাঝে কাকে বেশী ভালবাসতে হবে? | Tagged ,

আমার এক ছেলে অনেক ঋণের মধ্যে পড়েছে যা পরিশোধ করতে ২ বিঘা জমি বিক্রয় করতে হবে। এক্ষণে অন্য সন্তানদের অবহিত না করে আমার স্থাবর সম্পত্তি বিক্রয় করে তার ঋণ পরিশোধ করা জায়েয হবে কী?।


কোন সন্তান বিপদগ্রস্ত বা ঋণী হ’লে বিপদমুক্তি ও ঋণ পরিশোধের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ খরচ করতে বাধা নেই এবং এতে অন্য সন্তানদের সম্মতি থাকা অপরিহার্য নয়। কেননা বিপদগ্রস্ত সন্তানকে সহযোগিতা করা পিতার দায়িত্ব এবং তা ন্যায়বিচারেরই অন্তর্ভুক্ত। ইবনু তায়মিয়াহ (রহঃ)-এর মতে, … Continue reading

Posted in সম্পদ ছেলের ঋণের কারনে অন্য ছেলেদের না জানিয়ে বিক্রয় করতে পারবো কি? | Tagged , , ,

প্রাপ্তবয়স্ক জনৈক ছেলের নিজস্ব কোন আয় নেই। পিতার উপার্জনের বড় অংশ হারাম পদ্ধতিতে অর্জিত। এক্ষণে উক্ত ছেলের জন্য পিতার সম্পদ গ্রহণ করা জায়েয হবে কি?


বাধ্যগত অবস্থায় জায়েয হবে ইনশাআল্লাহ। তবে উক্ত সম্পদ মৌলিকভাবে হারাম হ’লে তা সন্তানের জন্য গ্রহণ করা জায়েয নয়। যেমন চুরি-ডাকাতি, ছিনতাই ও ঘুষ ইত্যাদির টাকা (উছায়মীন, আল-ক্বাওলুল মুফীদ আলা কিতাবিত তাওহীদ ২/৩৫২)।

Posted in পিতার হারাম উপার্জনের বড় অংশ ছেলের জন্য গ্রহণ করা জায়েয হবে কি? | Tagged , , ,

অবহেলাবশত ছালাত পরিত্যাগকারী মৃত পিতার জন্য দো‘আ করা সন্তানের জন্য জায়েয হবে কি?


যদি ছালাত অস্বীকারকারী না হয়, তবে অলসতা ও অজ্ঞতাবশে ছালাত পরিত্যাগকারী পিতার জন্য দো‘আ করা যাবে এবং সন্তানের দো‘আয় পিতা উপকৃত হবেন ইনশাআল্লাহ (উছায়মীন, ফাতাওয়া নূরুন আলাদ দারব ১২৪/১১৬)। আর সন্তানের দো‘আ পিতা-মাতার উপকারে আসে। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যখন মানুষ মৃত্যুবরণ … Continue reading

Posted in ছালাত পরিত্যাগকারী মৃত পিতার জন্য দো‘আ করা যাবে কি? | Tagged , ,

শিশুকালে পিতা-মাতার সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় আমি মামার বাড়িতে মানুষ হই। পিতা কখনো আমার কোন দায়িত্ব পালন করেননি। আর আমার সাথে কথা বলতে চাইলেও আমি কখনো বলিনি। এতে আমার কোন গোনাহ হবে কি? তিনি আমার ব্যাপারে কোন দায়িত্ব পালন না করায় তার প্রতি আমার কোন দায়িত্ব আছে কি?


জন্মদাতা পিতা দায়িত্ব পালন না করলেও তার সাথে সদাচরণ করতে হবে। পিতা দায়িত্ব পালন না করার কারণে গুনাহগার হবেন (মুত্তাফাক্ব আলাইহ, মিশকাত হা/৩৬৮৫)। কিন্তু এই কারণে সন্তানও পিতার সাথে অসদাচরণ করলে সেও গুনাহগার হবে। কেননা শরী‘আতের নির্দেশ হ’ল সর্বাবস্থায় সাধ্যমত জন্মদাতা … Continue reading

Posted in পিতা আমার ব্যাপারে কোন দায়িত্ব পালন না করায় তার প্রতি আমার দায়িত্ব আছে কি? | Tagged , ,

স্ত্রী সন্তান গ্রহণে অনিচ্ছুক। এক্ষণে স্বামী তাকে বাধ্য করতে পারবে কি?


স্ত্রীর স্বাস্থ্যগত ক্ষতির কারণ না থাকলে স্বামী তার স্ত্রীকে সন্তান নিতে বাধ্য করতে পারবেন। কেননা সন্তান ধারণ ও বংশবৃদ্ধি বিবাহের প্রধানতম উদ্দেশ্য। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘তোমরা বেশী বেশী সন্তান দায়িনী মহিলাকে বিবাহ কর’ (আবুদাঊদ, মিশকাত হা/৩০৯১; ছহীহাহ হা/২৩৮৩)।

Posted in স্ত্রী সন্তান গ্রহণে অনিচ্ছুক। এক্ষণে স্বামী তাকে বাধ্য করতে পারবে কি? | Tagged ,

জনৈক নারী তার স্বামীর নিকট থেকে খোলা করে পৃথক হয়েছে। উক্ত নারীর দু’টি মেয়ে তার তত্ত্বাবধানে রয়েছে। তিনি তার বড় মেয়েকে কিছুটা দরিদ্র হ’লেও দ্বীনদার এক পাত্রের সাথে বিবাহ দিতে চান। মেয়েও তাতে রাযী। কিন্তু দরিদ্র হওয়ায় পিতা রাযী নন। এক্ষণে উক্ত মহিলা কি নিজে অভিভাবক হিসাবে বিবাহ দিতে পারবে? না সাবেক স্বামীর অনুমোদন লাগবে?


প্রশ্ন অনুযায়ী উক্ত সন্তান বালেগা। এমতাবস্থায় সে যদি স্বেচ্ছায় মায়ের নিকটে অবস্থান করে এবং মা তার যাবতীয় খরচ বহন করে, সেক্ষেত্রে তার উপর পিতার অভিভাবকত্বের অধিকার থাকে না। আবু হুরায়রা (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ (ছাঃ)-এর নিকট জনৈকা স্ত্রীলোক এসে বলল, আমার … Continue reading

Posted in সন্তানের বিবাহের ক্ষেত্রে মা কি নিজে অভিভাবক হিসাবে দিতে পারবে? | Tagged , , ,

জেনেশুনে কখনো সন্তান নিতে পারবে না এরূপ নারীকে বিবাহ করা জায়েয হবে কি?


এরূপ নারীকে বিবাহ করা জায়েয। তবে রাসূল (ছাঃ) অধিক সন্তানদায়িনী নারীকে বিবাহ করার প্রতিই উৎসাহিত করেছেন। মা‘ক্বিল বিন ইয়াসার (রাঃ) হ’তে বর্ণিত তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবী করীম (ছাঃ)-এর নিকটে উপস্থিত হয়ে বলে, আমি একজন সুন্দরী এবং সদ্বংশীয়া রমণীর সন্ধান … Continue reading

Posted in সন্তান নিতে পারবে না এরূপ নারীকে বিবাহ করা জায়েয হবে কি? | Tagged ,

২৫ ও ১৮ বছর বয়সী স্বামী-স্ত্রী উভয়ে পড়াশুনায় ব্যস্ত। সন্তান দেখার মত কেউ না থাকায় তারা বর্তমানে আযলের মাধ্যমে সন্তান নেওয়া থেকে বিরত থাকছে। এরূপ করায় তাদের গুনাহ হবে কি?


এটি বিবাহের উদ্দেশ্য বিরোধী কাজ। অতএব এ থেকে বিরত থাকা উচিৎ। রাসূল (ছাঃ) সর্বদা অধিক সন্তানদায়িনী নারীকে বিবাহ করার জন্য উৎসাহিত করেছেন (আবুদাঊদ, নাসাঈ, মিশকাত হা/৩০৯১)। তবে বাধ্যগত অবস্থায় সাময়িকভাবে আযল করলে গুনাহ হবে না ইনশাআল্লাহ (বুখারী হা/৫২০৯; মুসলিম হা/৩৬২৯; মিশকাত হা/৩১৮৪-৮৫)।

Posted in সন্তান দেখার মত কেউ না থাকায় সন্তান নেওয়া থেকে বিরত থাকা যাবে কি? | Tagged ,

জন্মদাতা পিতা-মাতা সম্পর্কে অজ্ঞাত এবং পালক পিতা-মাতার নিকট বড় হওয়া নারী বিভিন্ন বৈষয়িক ক্ষেত্রে পালক পিতা-মাতার নাম ব্যবহার করতে পারবে কি?


পারবে না। আল্লাহ বলেন, ‘তোমরা তাদেরকে তাদের পিতৃ পরিচয়ে ডাকো। সেটাই আল্লাহর নিকট অধিক ন্যায় সঙ্গত। যদি তোমরা তাদের পিতৃ পরিচয় না জানো, তাহ’লে তারা তোমাদের ধর্মীয় ভাই ও বন্ধু (আহযাব ৩৩/৫)। রাসূল (ছাঃ) বলেন, ‘যে ব্যক্তি জেনেশুনে অন্যকে পিতা-মাতা বলে, তার … Continue reading

Posted in পালক পিতা-মাতার নাম বিভিন্ন বৈষয়িক ক্ষেত্রে ব্যবহার করতে পারবে কি? | Tagged ,

পুত্র সন্তান লাভের জন্য কোন ঝাড়-ফুঁক বা তেল পড়া, পানি পড়া খাওয়া যাবে কি?


সন্তান দানের মালিক আল্লাহ। অতএব পুত্র সন্তান লাভের জন্য কোনরূপ ঝাড়-ফুঁক বা তদবীর করা সম্পূর্ণরূপে নাজায়েয। আল্লাহ বলেন, আল্লাহ যাকে ইচ্ছা কন্যা সন্তান দান করেন, যাকে ইচ্ছা পুত্র সন্তান দান করেন অথবা যাকে ইচ্ছা পুত্র ও কন্যা যমজ সন্তান দান … Continue reading

Posted in পুত্র সন্তান লাভের জন্য কোন ঝাড়-ফুঁক বা তেল পড়া পানি পড়া খাওয়া যাবে কি? | Tagged ,

জনৈক ব্যক্তি তার সন্তানকে নিজের সন্তান হিসাবে পরিচয় দিতে অস্বীকার করে। এমতাবস্থায় সন্তানও পিতাকে পিতা হিসাবে স্বীকার করে না। এতে সন্তান কি গুনাহগার হবে?


এজন্য উভয়েই গোনাহগার হবে। রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, ‘রক্ত সম্পর্ক ছিন্নকারী ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে না’ (বুখারী হা/৫৯৮৪; মুসলিম হা/২৫৫৬; মিশকাত হা/৪৯২২)। তিনি আরো বলেন, ‘তোমরা তোমাদের পিতা থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়ো না (অর্থাৎ তাকে অস্বীকার করো না)। কারণ যে লোক নিজের … Continue reading

Posted in সন্তানকে অস্বীকার করলে গুনাহগার হবে? | Tagged ,

জনৈক ব্যক্তি দু’জন স্ত্রী রেখে মারা গেছেন। একজন নিঃসন্তান, অপরজনের ৩ ছেলে। এক্ষণে সম্পদ কিভাবে বণ্টিত হবে?


যদি মৃতের পিতা-মাতা বা ঊর্ধ্বতন কোন ওয়ারেছ না থাকে, তাহ’লে দুই স্ত্রী আট ভাগের এক ভাগ এবং বাকী সমুদয় সম্পত্তি ছেলেরা পাবে। আল্লাহ বলেন, আর তোমাদের পরিত্যক্ত সম্পত্তিতে স্ত্রীরা সিকি পাবে, যদি তোমাদের কোন সন্তান না থাকে। যদি থাকে, তবে তারা … Continue reading

Posted in জনৈক ব্যক্তি দু’জন স্ত্রী রেখে মারা গেছেন। তার সম্পদ কিভাবে বণ্টিত হবে? | Tagged , ,

আমার পিতার দ্বিতীয়া স্ত্রী দুই সন্তানসহ ১৮ বছর যাবৎ নিজ পিতার বাড়িতে অবস্থান করেন। আমার পিতা অনেক চেষ্টা করেও তাদেরকে নিজ বাড়িতে আনতে পারেননি। অথচ ঐ স্ত্রী ও তার দুই সন্তানের ভরণপোষণ আমার পিতাই করে থাকেন। তারাও ভরণপোষণের খরচ বেশী বেশী দেওয়ার জন্য বার বার চাপ দেয়। এক্ষণে এরূপ স্ত্রীর খরচ বহন করা আমার পিতার জন্য যরূরী কি?


স্বামীর অসন্তুষ্টিতে ও অসম্মতিতে স্ত্রীর এরূপ অবস্থান জায়েয নয়। রাসূল (ছাঃ) বলেন, যদি কোন স্ত্রী তার স্বামীর শয্যা ছেড়ে অন্যত্র রাত্রি যাপন করে, তাহ’লে যতক্ষণ না সে তার স্বামীর শয্যায় ফিরে আসে, ততক্ষণ ফেরেশতাগণ তার ওপর লা‘নত বর্ষণ করতে থাকেন … Continue reading

Posted in স্বামীর অসম্মতিতে স্ত্রী অন্যত্র অবস্থান করলে খরচ দেওয়া যাবে কি? | Tagged , ,