Tag Archives: সূদ

সূদখোর কি চিরস্থায়ী জাহান্নামী?


কুরআনে সূদখোরকে চিরস্থায়ী জাহান্নামী ঘোষণা করা হয়েছে (বাক্বারাহ ২/২৭৫)। তবে বিষয়টি ব্যাখ্যাসাপেক্ষ। কারণ শিরককারী ব্যতীত অন্য কোন কবীরা গুনাহগার ব্যক্তি চিরস্থায়ী জাহান্নামী হবে না, যা কুরআন ও হাদীছের অসংখ্য দলীল দ্বারা প্রমাণিত। সেকারণ বিদ্বানগণ ‘চিরস্থায়ী’ পরিভাষাকে দু’ভাগে ভাগ করেছেন। (১)  কুরআন  … Continue reading

Posted in সূদখোর কি চিরস্থায়ী জাহান্নামী? | Tagged ,

সূদী অর্থ দিয়ে ক্রয়কৃত জনৈক ব্যক্তির জমি ফসল ভাগাভাগির চুক্তিতে লিজ নেওয়া যাবে কি?


যাবে। কেননা এখানে লিজ গ্রহীতা মালিক নয়। আর আল্লাহ বলেন, ‘একের পাপের বোঝা অন্যে বহন করবে না’ (নাজম ৫৩/৫৫; আন‘আম ৬/১৬৪)।

Posted in সূদী অর্থ দিয়ে ক্রয়কৃত জমি ফসল ভাগাভাগির চুক্তিতে লিজ নেওয়া যাবে কি? | Tagged , ,

আমার এক নিকটাত্মীয় সূদী ব্যাংকে চাকুরী করে। মাঝে মাঝে আমার বাসায় বেড়াতে আসলে দামী উপহার ও খাবার-দাবার নিয়ে আসে। এক্ষণে সেগুলি গ্রহণ ও ভক্ষণ করা জায়েয হবে কি?


যাবে। কারণ আল্লাহ বলেন, ‘কেউ কারো পাপের বোঝা বহন করবে না’ (আন‘আম ৬/১৬৪)। ইহূদী-নাছারারা সূদী লেন-দেনে জড়িত ছিল জেনেও রাসূল (ছাঃ) তাদের হাদিয়া গ্রহণ করেছেন এবং তাদের তৈরী খাবার খেয়েছেন (মুমতাহিনা ৬০/৮; বুখারী হা/১৪৮১, ৩১৬৯; মিশকাত হা/৫৯৩৫)। ইবনু মাসঊদ (রাঃ)-কে এবিষয়ে প্রশ্ন … Continue reading

Posted in ব্যাংকে চাকুরী করা আত্বীয়ের উপহার ও খাবার গ্রহণ ও ভক্ষণ করা জায়েয হবে কি? | Tagged ,

বীমা কোম্পানীতে চাকুরী করা হারাম জেনে চাকুরী ছাড়ার প্রস্ত্ততি নিচ্ছি। এক্ষণে ১০ বছর চাকুরীর ফলে প্রাপ্ত প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্রাচুইটি, লভ্যাংশ ইত্যাদি থেকে প্রাপ্ত অর্থের ব্যাপারে শরী‘আতের বিধান কি?


এক্ষেত্রে চাকুরী পরিত্যাগ করে খালেছ নিয়তে তওবা করতে হবে এবং পরবর্তীতে প্রাপ্ত সমস্ত অর্থ নেকীর আশা ব্যতীত দান করে দিতে হবে। কারণ যে সূদী অর্থ থেকে বাঁচার জন্য উক্ত চাকুরী ছাড়া হচ্ছে, তা থেকে প্রাপ্য সকল অর্থই তার অন্তর্ভুক্ত। তবে … Continue reading

Posted in বীমা কোম্পানীর চাকুরি ছাড়ার পর প্রভিডেন্ট ফান্ডের অর্থের বিধান কি? | Tagged , ,

সমাজে বহু মানুষ মাসিক মুনাফাভিত্তিক সরকারী সঞ্চয়পত্র ক্রয় করেন এবং এর সূদের উপরেই জীবিকা নির্বাহ করেন। এরূপ করা জায়েয হবে কি?


সরকারী সঞ্চয়পত্র থেকে প্রাপ্ত লাভ সম্পূর্ণরূপে সূদের অন্তর্ভুক্ত, যা গ্রহণ করা হারাম। উল্লেখ্য, এক লক্ষ টাকার সঞ্চয়পত্র ক্রয় করলে ৫ বছরে নির্দিষ্টভাবে ৫৪,৭২০ টাকা লভ্যাংশ পাওয়া যায়। যা স্পষ্টভাবে সূদের অন্তর্ভুক্ত। আবু সাঈদ খুদরী (রাঃ) হ’তে বর্ণিত রাসূল (ছাঃ) বলেন, … Continue reading

Posted in মাসিক মুনাফাভিত্তিক সরকারী সঞ্চয়পত্র ক্রয় করা জায়েয হবে কি? | Tagged

মসজিদের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করতে হবে না এরূপ ধারণায় বহুদিন যাবৎ বিল পরিশোধ না করায় এখন অনেক সূদ জমা হয়ে গেছে। বর্তমানে সূদী অংশ বাদ দিয়ে কেবল মূল বিল পরিশোধ করা হয়। ফলে সূদ দিন দিন বেড়েই চলেছে। এক্ষণে বকেয়া সমুদয় সূদ মসজিদ ফান্ড থেকে দেওয়া যাবে কি?


সরকার কর্তৃক এরূপ সূদ গ্রহণ যুলুমের নামান্তর। এরপরেও তা পরিশোধ না করা সঠিক হয়নি। কারণ যালেম সরকারের ব্যাপারে রাসূল (ছাঃ)-এর স্পষ্ট নির্দেশ- ‘তাদের হক তাদের দাও এবং তোমাদের হক আল্লাহর কাছে চাও’ (মুত্তাফাক্ব ‘আলাইহ, মিশকাত হা/৩৬৭২)। এক্ষেত্রে সরকার গোনাহগার হবে, জনগণ … Continue reading

Posted in মসজিদের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ না করায় সূদ বেড়েছে এখন করণীয় কি? | Tagged ,

পোর্টে ব্যবসার সময় টাকা ঋণ নিতে হয়। যাতে ৪-৫ ঘণ্টা ব্যবধানে লাখে ১০ হাযার টাকা লাভ দিতে হয়। এরূপ কারবার শরী‘আত সম্মত হবে কি? না হ’লে করণীয় কি?


এরূপ কারবার শরী‘আত সম্মত নয়। এটি সুস্পষ্ট সূদ যা ইসলামে হারাম। আল্লাহ বলেন, আল্লাহ ব্যবসাকে হালাল করেছেন ও সূদকে হারাম করেছেন (বাক্বারাহ ২/২৭৫)। অতএব সম্ভব হ’লে সূদ মুক্ত ঋণ দ্বারা ব্যবসা করতে হবে। নইলে ছেড়ে দিতে হবে।

Posted in পোর্টের ব্যবসা করা যাবে কি?, সুদ খাওয়া ইমামের পিছনে ছালাত আদায় করা বৈধ হবে কি?, সুদ সামান্য হলে উক্ত টাকা গ্রহণ করা যাবে কি?, সুদের উপর টাকা দেওয়া যাবে কি? | Tagged ,

আমি অতিসম্প্রতি রেলওয়ের চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ করব। অবসরকালীন অর্থ আমি না তুললে প্রতি মাসে পেনশন হিসাবে পাব। আর তুলে ডাকবিভাগে জমা রাখলে লভ্যাংশ পাব। কোনটি আমার জন্য সূদমুক্ত হবে?


পেনশন গ্রহণ করাই উচিত হবে। কারণ পেনশন চাকুরীর চুক্তির অন্তর্ভুক্ত অবসরকালীন ভাতা। যা সূদ নয়। কিন্তু তা উত্তোলন করে নির্দিষ্ট পরিমাণ লাভ প্রদানের শর্তে কোন সূদভিত্তিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা রেখে অর্থ গ্রহণ করা স্পষ্ট সূদ।

Posted in পেনশন কি সূদ মুক্ত? | Tagged

অমুসলিম দেশে অমুসলিমদের সাথে কোন মুসলিম ব্যক্তি সূদী লেনদেন করতে পারবে কি? জনৈক আলেম বলেন, এর পক্ষে ছহীহ হাদীছ ও ইমামগণের সম্মতি রয়েছে। একথার সত্যতা আছে কি?


না। কেননা সূদ সর্বাবস্থায় হারাম (বাক্বারাহ ২/২৭৫)। ইবনু কুদামাহ বলেন, সূদ যেমন মুসলিম রাষ্ট্রে হারাম তেমনি অমুসলিম রাষ্ট্রেও হারাম। একথাই বলেছেন ইমাম মালেক, শাফেঈ, আওযাঈ, ইসহাক ও আবু ইউসুফ (রহঃ)’ (আল-মুগনী, মাসআলা নং ২৮৪২ ‘দারুল হারবে সূদ’ অনুচ্ছেদ ৪/৩২)। তবে ইমাম আবু … Continue reading

Posted in সূদী লেনদেন মুসলিমরা অমুসলিমদের সাথে করতে পারবে কি? | Tagged ,

কানাডা সরকার প্রতি মাসে সন্তান প্রতি ৫০০ ডলার প্রদান করে। পিতা-মাতার বাৎসরিক আয় অনুযায়ী বরাদ্দের পরিমাণ কমবেশী হয়। এক্ষণে সূদী কারবারের উপর প্রতিষ্ঠিত এই সরকারের অনুদান গ্রহণ করা যাবে কি?


উক্ত অনুদান গ্রহণ করা যাবে। কারণ সরকার গঠিত হয় জনকল্যাণের জন্য। এটি ব্যাংকের ন্যায় কেবল সূদী  লেনদেনের জন্য প্রতিষ্ঠিত হয় না। এক্ষণে যদি সরকারী তহবিলে কোন হারাম উপার্জন থেকে থাকে, তবে তার জন্য সরকার দায়ী হবে, জনগণ নয়। আল্লাহ বলেন, … Continue reading

Posted in সূদী কারবারের উপর প্রতিষ্ঠিত সরকারের অনুদান গ্রহণ করা যাবে কি? | Tagged

আমি একান্ত প্রয়োজনে কারু নিকট থেকে টাকা ধার নিয়ে পরে জানতে পারি যে তাকে সূদ দিতে হবে। এক্ষণে আমার করণীয় কি?


জানার সাথে সাথে ঋণদাতাকে ডেকে সূদ গ্রহণের ভয়াবহ পরিণাম সম্পর্কে অবহিত করতে হবে এবং তাকে তা গ্রহণ না করার ব্যাপারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। অতঃপর করযে হাসানার নেকী সম্পর্কে বুঝাতে হবে। এভাবে সূদ ব্যতীত মূল টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করতে … Continue reading

Posted in সূদ বাধ্য হয়ে দেওয়া যাবে কি? | Tagged

ব্যাংক বা এনজিও থেকে সূদভিত্তিক ঋণ নিয়ে ব্যবসা করলে উক্ত ব্যবসা হালাল হবে কি?


সূদের উপর টাকা নিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্য করা জায়েয নয়। আল্লাহ তা‘আলা সূদখোরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছেন (বাক্বারাহ ২/২৭৮-৭৯) এবং সূদগ্রহীতা ও সূদদাতা উভয়কে লা‘নত বা অভিসম্পাত করেছেন (আবুদাঊদ, ইবনু মাজাহ, মিশকাত হা/৩৭৫৩)। রাসূল (ছাঃ) বলেছেন, ‘সূদের দ্বারা সম্পদ যতই বৃদ্ধি পাক না কেন তার … Continue reading

Posted in ব্যাংক বা এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা করলে ব্যবসা হালাল হবে কি? | Tagged , ,

প্রভিডেন্ট ফান্ডে সরকারী নীতি অনুযায়ী প্রদত্ত সূদের টাকা গ্রহণ করে কোন ভাল কাজে দান করে দেওয়ায় কোন বাধা আছে কি?


কোন বাধা নেই। বরং সেই টাকা তুলে জনকল্যাণ মূলক কাজে ব্যয় করাই উত্তম হবে। কারণ ব্যাংকে সে অর্থ রেখে দিলে তাতে আরও সূদ জমা হবে এবং তা আরও অধিক অন্যায় কাজে ব্যয়িত হওয়ার সুযোগ সৃষ্টি হবে (ফাতাওয়া লাজনা দায়েমাহ, ক্রমিক ১৫২৫৯, … Continue reading

Posted in সূদের টাকা দিয়ে ভাল কাজে দান করা যাবে কি? | Tagged

আমি একটি কোম্পানীতে চাকুরী করি। আমাকে আয়ের উপর বাধ্যতামূলকভাবে কর দিতে হয়। কিন্তু আমি যদি তা সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করি তাহ’লে প্রতি লাখে পনের হাযার টাকা কর মওকুফ পাওয়া যায়। এক্ষণে আমি সেখানে বিনিয়োগ করে তা থেকে প্রাপ্ত সূদ নেকীর আশা ছাড়া দান করা যাবে কি?


কর মওকূফের সুযোগ লাভের উদ্দেশ্যে এভাবে সূদী কাজে সহযোগিতা করা জায়েয হবে না (মায়েদাহ ৫/২)। কেননা সূদের পাপ অত্যন্ত ভয়াবহ (বাক্বারাহ ২/২৭৮-৭৯;  মুসলিম হা/১৫৯৮, মিশকাত হা/২৮০৭)।

Posted in কর সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করে মওকূফ করা যাবে কি? | Tagged

জনৈক ব্যক্তি সূদের সাথে জড়িত ছিল। বর্তমানে সে তওবা করেছে। কিন্তু সে উক্ত সূদের টাকার উপরেই জীবিকা নির্বাহ করছে। এমতাবস্থায় তার রূযী কি হালাল হবে?


মূল সম্পদ রেখে দিয়ে সূদের মাধ্যমে অর্জিত ও জমাকৃত সম্পদ সাধ্যমত হিসাব করে পৃথক করতে হবে এবং নেকীর প্রত্যাশা ব্যতীত তা জনকল্যাণমূলক কাজে ব্যয় করে দিতে হবে (ছহীহ ইবনে হিববান হা/৩৩৫৬, ছহীহুত তারগীব হা/৮৮০)। অনিচ্ছাকৃত কমবেশীতে দোষ নেই। কারণ আল্লাহ কাউকে … Continue reading

Posted in সূদের টাকার উপরেই জীবিকা নির্বাহ করা যাবে কি? | Tagged

সূদী অর্থ সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যবহার করা যায়। এক্ষণে এ উদ্দেশ্যে পিতার জমাকৃত টাকা নতুনভাবে ব্যাংকে রেখে লভ্যাংশ গ্রহণ করা জায়েয হবে কি?


এ কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে। কারণ বাধ্যগত অবস্থায় ব্যাংকে টাকা রাখার কারণে প্রাপ্ত সূদ থেকে মুক্তি পাওয়ার লক্ষ্যেই প্রাপ্ত লভ্যাংশ সমাজকল্যাণ খাতে ব্যয় করার অনুমতি রয়েছে। যার মাধ্যমে নেকী অর্জনের কোন সুযোগ নেই। এক্ষণে ইচ্ছাকৃতভাবে সমাজকল্যাণে ব্যয় করার লক্ষ্যে … Continue reading

Posted in সূদী অর্থ সমাজকল্যাণমূলক কাজে ব্যবহার করা যায় কি? | Tagged